অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ল্যাভরভের সফরের এক সপ্তাহ পর যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকের উগান্ডা সফর 


উগান্ডার রাজধানী কাম্পালায় ৪ আগস্ট, জাতিসংঘে নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূত লিন্ডা টমাস গ্রিনফিল্ড ডান দিকে এবং উগান্ডায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত নাটালি ই. ব্রাউন  

জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত লিন্ডা টমাস গ্রিনফিল্ড সাংবাদিকদের বলেন, গত ৪ আগস্ট তার কাম্পালা সফর ছিল উগান্ডার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক পুনরায় জোরদার ও শক্তিশালী করা, রাশিয়ার সঙ্গে প্রতিযোগিতা করা নয়। তিনি রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সফরের এক সপ্তাহ পর এই সফর করেন।

উগান্ডার প্রেসিডেন্ট ইয়োওয়েরি মুসেভেনির সঙ্গে বৈঠকের পর টমাস-গ্রিনফিল্ড এই অধিবেশনকে কার্যকর ও খোলামেলা বলে বর্ণনা করেন। তারা খাদ্য ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান, উচ্চ জ্বালানি খরচ এবং উগান্ডায় শরণার্থীদের সহায়তা দেয়ার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

টমাস -গ্রিনফিল্ড বলেন, মুসেভেনির সঙ্গে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে সব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে তা হলো, ইউক্রেনেরাশিয়ার যুদ্ধের প্রভাব খাদ্যের সহজলভ্যতা এবং তেলের মূল্য ।

উগান্ডায় প্রতি লিটার জ্বালানি তেলের দাম ২ ডলার হওয়ায় টমাস-গ্রিনফিল্ড পরিষ্কারভাবেই অনুধাবন করতে পারছেন যে আফ্রিকার দেশগুলি যারা রাশিয়ার সাথে ব্যবসা বাণিজ্য করছে বিশেষ করে নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা পণ্যগুলি নিয়েতাদের কী অবস্থা দাঁড়াবে।

তিনি বলেন, “কে বন্ধু এবং কে শত্রু হবে তা বেছে নেওয়ার অধিকার উগান্ডা এবং যে কোন আফ্রিকান দেশের আছে। আমরা উগান্ডার বন্ধু হিসেবে এখানে এসেছি।” তিনি বলেন, “কোনো দেশ যদি রাশিয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় যেখানেনিষেধাজ্ঞা রয়েছে, তা হলে তো তারা নিষেধাজ্ঞাগুলো ভঙ্গ করছে। আমরা দেশগুলোকে সতর্ক করে দিচ্ছি তারা যেন এই নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ না করে কারণ তারা যদি সেটা করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হবে।”

XS
SM
MD
LG