অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

খুলনায় ট্যাংকলরি ধর্মঘট, ১৫ জেলায় তেল উত্তোলন ও বিপণন বন্ধ


প্রতীকী ছবি

বাংলাদেশের খুলনায়, কমিশন বৃদ্ধি ও ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে, ২৪ ঘণ্টার কর্মবিরতি (ধর্মঘট) পালন করছেন জ্বালানি ব্যবসায়ীরা। রবিবার (৭ আগস্ট) সকাল ৮ টা থেকে এ ধর্মঘট শুরু হয়েছে। এতে, ঐ অঞ্চলের ১৫ জেলায় জ্বালানি তেল সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

বাংলাদেশ ট্যাংকলরি মালিক সমিতি ও জ্বালানি তেলের পাম্প মালিক সমিতি, খুলনা বিভাগ, এই ঘর্মঘট আহবান করেছে। ট্যাংকলরি মালিক-শ্রমিকরা পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা,এই তিনটি ডিপো থেকে তেল উত্তোলন ও বিপণন বন্ধ রেখে, এ কর্মসূচি পালন করছেন। ফলে খুলনাসহ ১৫ জেলায় তেল সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

বাংলাদেশ ট্যাংকলরি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের খুলনা বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. ফরহাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডিপো থেকে জ্বালানি তেল উত্তোলন বন্ধ থাকলেও, এ সময়ে ফিলিং স্টেশন (পাম্প) থেকে তেল (পাম্পে মজুদ) সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে।

বর্তমানে প্রতি লিটার জ্বালানি তেলের মূল্যের (পূর্ব মূল্য) ২ দশমিক ৭১ টাকা কমিশন দেয়া হয়। মুল্যবৃদ্ধির আগেও, ট্যাংকলরি মালিক সমিতি ও জ্বালানি তেলের পাম্প মালিক সমিতি, কমিশন বৃদ্ধির জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে (বিপিসি, জ্বালানি মন্ত্রণালয়) একাধিকবার আবেদন করেছিল। জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়লেও, তাদের কমিশনের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত দেয়া হয়নি।

এ পরিস্থিতিতে, ট্যাংকলরি মালিক সমিতি ও জ্বালানি তেলের পাম্প মালিক সমিতি তাদের কমিশন প্রতি লিটার জ্বালানি তেলের বর্তমান মূল্যের ৭.৫ শতাংশ হারে দেওয়ার জন্য দাবি করেছে। এই দাবিতে খুলনা বিভাগে তারা ধর্মঘট করছে। ২৪ ঘন্টার মধ্যে দাবি পূরণ না হলে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানান জ্বালানি ব্যবসায়ীরা।

XS
SM
MD
LG