অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

উত্তর কোরিয়ার সম্পর্কে বৈশ্বিক সহযোগিতার আহ্বান জানালেন অধিকার বিষয়ক দক্ষিণ কোরিয়ার দূত


দক্ষিণ কোরিয়ার নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার বিষয়ক দূত, লি শিন-হোয়া বলেন যে, কিম জং উনের শাসনের অধীনে থাকা মানুষজনের বেঁচে থাকার জন্য উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকারের উন্নয়নে, দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টা প্রয়োজন।

দক্ষিণ কোরিয়ার নবনিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার বিষয়ক দূত আহ্বান জানিয়েছেন যাতে, কিম জং উন এর শাসনের অধীনে বসবাসরত মানুষের মানবাধিকার উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে সহযোগিতা করে।

সোওল-এ অবস্থিত কোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক, লি শিন-হোয়া বলেন যে, তিনি বিশ্বাস করেন উত্তর কোরিয়ার মানুষের “বেঁচে থাকার জন্য” এমন উদ্যোগ প্রয়োজনীয়। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ উত্তর কোরিয়াকে “বিশ্বের সবচেয়ে দমনমূলক দেশগুলোর একটি” হিসেবে ব্যাখ্যা করে।

২৮ জুলাই দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে দুই সপ্তাহ ধরে লি তার নতুন দায়িত্বটি পালন করছেন। তার আনুষ্ঠানিক পদবী হল উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক সহযোগিতা দূত।

উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার বিষয়ক আইনের আওতায় ২০১৬ সালে পদটি সৃষ্টি করা হয়। তারপর সাবেক প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইন এর প্রশাসনের আমলে এই পদ প্রায় পাঁচবছর শূন্য ছিল। সাবেক ঐ প্রেসিডেন্ট আন্তঃকোরিয়া সমঝোতার প্রচেষ্টায় বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন।

ভিওএ-কে ৩ আগস্ট দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে, লি জোর দিয়ে বলেন যে, “উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকারের সমস্যাটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জন্য একটি সমস্যা।”

লি বলেন, “মানবাধিকার সমস্যার উন্নয়ন এবং গণতন্ত্রের প্রসার সমান্তরাল পথে রয়েছে। সেটি মাথায় রেখে, আমাদের অবশ্যই উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকারের বিষয়টি নিয়ে শুধু এভাবে এগোনো উচিৎ না যে তা দক্ষিণ কোরিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্য মীমাংসার একটি বিষয়, বরং তা সর্বজনীন মানবাধিকারের মূল্যবোধের ভিত্তিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে মীমাংসা করতে হবে।”


XS
SM
MD
LG