অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে সন্ত্রাসী হামলায় আহত নরেন্দ্রনাথ মুন্ডা মারা গেছেন, গ্রেপ্তার ২


নিহত নরেন্দ্রনাথ মুন্ডা। (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগরের আদিবাসী মুন্ডা পল্লীতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত নরেন্দ্রনাথ মুন্ডা মারা গেছেন। শনিবার (২০ আগস্ট) বিকাল ৩টার দিকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নরেন্দ্রনাথ মুন্ডা উপজেলার ঈশ্বরীপুর ইউনিয়নের ধুমঘাট অন্তিখালী গ্রামের বাসিন্দা। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তাররা হলেন; বংশীপুর গ্রামের নুর হোসেন ও শ্রীফলাকাটি গ্রামের নুর মোহাম্মদ।

এর আগে শুক্রবার (১৯ আগস্ট) সকালে শ্যামনগরের ধুমঘাটে মুন্ডা সম্প্রদায়ের জমি দখলে নিতে হামলা চালায় শ্রীফলাকাটি গ্রামের রাশেদুল ইসলাম ও ইবাদুল ইসলামের নেতৃত্বে বংশীপুর এলাকার দুই শতাধিক মানুষ। এসময় গুরুতর আহত হন রিনা মুন্ডা (৩৫), সুলতা মুন্ডা (৪০), বিলাশী মুন্ডা (৩৬) ও নরেন্দ্রনাথ মুন্ডা (৭০)। ভাংচুর ও লুটপাট করা হয় মুন্ডাদের বাড়িতে।

এ হামলার ঘটনায় শনিবার সকালে ফণীন্দ্র মুন্ডা বাদি হয়ে, জ্ঞাত ৩০ জন এবং অজ্ঞাত আরও ১৭০ জনকে অভিযুক্ত করে করে শ্যামনগর থানায় মামলা করেন।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াহিদ মোর্শেদ জানান, “ধুমঘাট গ্রামে মুন্ডা সম্প্রদায়ের আট বিঘা জমির জবর দখল নিতে শুক্রবার হামলা চালানোর অভিযোগ উঠে শ্রীফলকাটি গ্রামের এবাদুল ইসলামের নেতৃত্বে দুই শতাধিক ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে।”

তিনি আরও বলেন, “দখল নিতে বাধা দেয়ায় মুন্ডাদের পিটিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। এতে বিলাসী মুন্ডা, রিনা মুন্ডা, সুলতা মুন্ডা ও নরেন্দ্র মুন্ডা মারাত্মক আহত হন। পরে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এর মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নরেন্দ্র মুন্ডা শনিবার বিকালে সাতক্ষীরা মেডিকেলে মারা গেছেন।”

XS
SM
MD
LG