অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সোমালিয়ার হোটেলে ভয়াবহ অবরোধের অবসান হয়েছে, জানিয়েছেন কর্মকর্তারা


মোগাদিশুতে আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট আল-শাবাব জঙ্গীগোষ্ঠীর চালানো হামলার ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালাচ্ছেন পুলিশ ও সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তারা, ২১ আগস্ট ২০২২।

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিশুর একটি হোটেল ৩০ ঘন্টারও বেশি সময় অবরুদ্ধ হয়ে থাকার পর, অবরোধ পরিস্থিতির অবসান হয়েছে। রবিবার এ কথা জানিয়েছেন সোমালিয়ার কর্মকর্তারা।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে, ঐ হামলায় অন্তত ২০ জন নিহত ও ৪০ জন আহত হয়েছেন।

বিবিসি জানায়, “শুক্রবার রাতে ও শনিবারে জঙ্গীদের সাথে নিরাপত্তা বাহিনীর তুমুল লড়াইয়ের ফলে ঐ হোটেলটি অনেকাংশেই ধ্বংস হয়ে গেছে।”

নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বলেন, শুক্রবার রাতে আল-শাবাব জঙ্গীরা বেশ কয়েকটি বিস্ফেরণ ঘটিয়ে ও গুলি করতে করতে হায়াত হোটেলে আক্রমণ চালানোর পর থেকেই, সোমালিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করে। আল-শাবাব জঙ্গীদের কোন হোটেলে হামলার ঘটনা এটাই প্রথম।

আক্রমণ চলাকালে নারী ও শিশুসহ বেসামরিক মানুষজনকে হোটেলটি থেকে উদ্ধার করা হয়।

হায়াত হোটেলটি একটি বিলাসবহুল হোটেল। হোটেলটিতে সরকারি কর্মকর্তা, প্রবীণ ও অভিবাসী সোমালীয়রা যাতায়াত করতেন।

আক্রমণে হতাহতদের মধ্যে ব্যবসায়ী ও ঐতিহ্যগতভাবে স্থানীয় প্রবীণ লোকজন রয়েছেন। পরিবারের তথ্যমতে, হোটেলটির মালিকদের একজন, আবদিরহমান ইমান ঘটনায় নিহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের তথ্যমতে, “যুক্তরাষ্ট্র প্রশিক্ষিত আলফা গ্রুপ” হিসেবে পরিচিত বিশেষ নিরাপত্তা ইউনিট যখন নিচতলা থেকে অভিযান শুরু করে; তখন বিদ্রোহী স্নাইপাররা উপরের তলাগুলোতে অবস্থান নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা মতে, শুক্রবার মাগরিবের নামাজের পরপরই আক্রমণ শুরু হয়। প্রথমে হোটেলটির প্রবেশপথে একটি গাড়িবোমার বিস্ফোরণ ঘটে। এরপর, অন্তত আরও দুইটি বিস্ফোরণ হয়। তারপর পুলিশের বেশে থাকা বন্দুকধারীরা হোটেলটিতে ঢুকে পড়ে।

আল-কায়েদার সাথে সংশ্লিষ্ট আল-শাবাব জঙ্গীগোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেছে।

সোমালিয়ার নতুন প্রেসিডেন্ট হাসান শেখ মোহামাদ মে মাসে দায়িত্বভার গ্রহণের পর, মোগাদিশুর কোন গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যবস্তুতে এটিই আল-শাবাবের চালানো প্রথম হামলা।

XS
SM
MD
LG