অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিরিয়া বিষয়ে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করলেন এরদোয়ান


তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় মন্ত্রিসভার এক বৈঠকের পর বক্তৃতা করছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান। ১৭ই মে, ২০২১। (ফাইল ছবি)

সিরিয়ার বিরোধীদের জোরালো সমর্থক তুরস্ক ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, তারা এখন দামেস্ক সরকারের সাথে আলোচনার জন্য প্রস্তুত হতে পারে। সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের শুরুতে আঙ্কারা প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সরকারের সাথে তার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছিল, কিন্তু এখন লক্ষ লক্ষ সিরীয় শরণার্থীকে তারা ফেরত দিতে চাইছে।

সিরিয়ার সরকারের সাথে তার জাতির সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেজেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান সম্প্রতি সংবাদদদাতাদের বলেন, "দুই দেশের মধ্যে রাজনৈতিক সংলাপ এবং কূটনীতি বিচ্ছিন্ন করা যাবে না।"

এই মাসের শুরুতে, তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসোগলু প্রকাশ করেন যে তিনি সম্প্রতি সিরিয়ার সাথে আলোচনা করেছেন।

চাভুসোগলু বলেন, তিনি একটি বৈঠকের ফাঁকে সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেছেন। তিনি আরও বলেন যে, তিনি সিরিয়ার এই শীর্ষ কূটনীতিককে বলেছেন, তুরস্ক বিশ্বাস করে আসাদ সরকার এবং বিরোধীদের মধ্যে শান্তি স্থাপিত হবে।

২০১১ সালে আঙ্কারা দামেস্কের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে এবং কিছুদিন আগে পর্যন্ত, এরদোয়ান ছিলেন প্রেসিডেন্ট আসাদের কট্টর সমালোচকদের অন্যতম।

সিরিয়ার বিদ্রোহীরা তুর্কি ও সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে আলোচনার খবর পাওয়ার সাথে সাথে তুরস্কের পতাকা পুড়িয়ে এর প্রতিবাদ করে।

চ্যাটাম হাউজের তুরস্ক বিষয়ক একজন বিশ্লেষক গালিপ দালে বলেন, সিরিয়ার বিদ্রোহীদের এতে উদ্বিগ্ন হওয়ার যথার্থ কারণ রয়েছে, যেহেতু তাদের উপর তুর্কি সরকারের শক্তিশালী সামরিক ও রাজনৈতিক সমর্থন আছে।

বিশ্লেষক দালে বলেছেন, এরদোয়ানের আলোচনায় মস্কোর হস্তক্ষেপও একটি কারণ হতে পারে।

উল্লেখ্য, সিরিয়ার তুর্কি সীমান্ত বরাবর কুর্দি ওয়াইপিজি গ্রুপের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দখল করা সিরিয়ার একটি বিশাল অংশ নিয়ন্ত্রণ করে আঙ্কারা।

আসাদ বারবার সিরিয়ার ভূখণ্ড থেকে তুর্কি বাহিনীকে নিঃশর্ত প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন। সেপ্টেম্বরে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের সাথে মিলিত হলে আসাদ সামনাসামনি এই দাবি জানাতে পারেন। সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার একটি বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য উভয় নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

XS
SM
MD
LG