অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চাল-গমসহ নয় পণ্যের দাম নির্ধারণ করে দেবে সরকার: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি


বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি

বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন, ভোজ্যতেলের মতো চাল, গম (আটা-ময়দা), চিনি, মসুর ডাল, পেঁয়াজ, রড ও সিমেন্টসহ নয়টি পণ্যের দাম নির্ধারণ করে দেবে সরকার। মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য ও বাজার পরিস্থিতি নিয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ তথ্য জানান তিনি।

এই নয়টি পণ্য হলো; চাল, গম (আটা ও ময়দা), ভোজ্যতেল (সয়াবিন ও পাম অয়েল), পরিশোধিত চিনি, মসুর ডাল, পেঁয়াজ, এম এস পণ্য (রড) ও সিমেন্ট।

বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, “ট্যারিফ কমিশন আগামী ১৫ দিনের মধ্যে এসব পণ্যের যৌক্তিক মূল্য বের করবে। কেউ নির্ধারিত মূল্যের বেশি নিলে, তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।”

টিপু মুনশি বলেন, “বৈঠকে অন্তর্জাতিক বাজারে ডলারের উচ্চ মূল্য ও আমাদের দেশের ব্যবসায়ীদের সুযোগ নেয়ার বিষয়সহ সার্বিক বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে।” তিনি বলেন, “সাধারণত আমাদের ট্রারিফ কমিশন ভোজ্যতেলের দাম সময়ে সময়ে ঠিক করে দেয়। কখনো বাড়ানোর দরকার হলে বাড়ায়। আবার যখন আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমে সেটা কমিয়ে দেয়।”

বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, “আমরা লক্ষ্য করেছি বিভিন্ন পণ্যের দাম বেড়েছে, যেটা গ্রহণযোগ্য না। যদিও সবগুলো বাণিজ্য মন্ত্রণালয় দেখবে, এমনটা নয়। কৃষি পণ্যের বিষয়টি রয়েছে, চাল রয়েছে, যেটা খাদ্য মন্ত্রণালয় বা কৃষি মন্ত্রণালয় দেখবে। তারপর ডিমের কথা আসছে। মাঝখানে ডিমের দাম বেড়েছে। ডিমের কথা কোনোদিন বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বিবেচনায় আনেনি বা আমাদের দেখার বিষয়ও ছিল না। তারপরও প্রশ্ন আসার পর, আমাকে সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছিল।”

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, “ট্যারিফ কমিশন এখন থেকে এসব পণ্যের দাম যেটা হওয়া উচিত, ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বসে ঠিক করবে এবং সেটা ঘোষণা দেয়া হবে। বাজারে ষোষিত দামে বিক্রি হতে হবে। এর থেকে বেশি যদি কেউ নেয়, সে ক্ষেত্রে তাদের বিরুদ্ধে জরিমানা শুধু নয়, আমরা ঠিক করেছি সোজাসুজি আমরা মামলাতে চলে যাবো। আইন আছে তিন বছরের জেল বা জরিমানা। সেই পদক্ষেপ আমরা নিতে যাবো। যা যা আমাদের ক্ষমতা আছে, যারা অনৈতিকভাবে দাম বাড়াবেন..সেটা প্রয়োগ হবে ইমিডিয়েটলি। বলে দেয়া হয়েছে ১৫ দিনের মধ্যে দাম ক্যালকুলেশন করে বাজারে ঘোষণা করে দেয়া হবে।”

তিনি বলেন, “যদি আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর আমাদের ডিপেন্ড করতে হয়, তাহলে আন্তর্জাতিক বাজারের দাম উঠলে এখানে দাম বৃদ্ধি পাবে। সেটাও কতোটুকু বৃদ্ধি পাওয়া উচিত, সেটা ঠিক করে দেয়া হবে। এছাড়া বিভিন্ন ভাবে কথা আসছে আন্তর্জাতিক বাজারে জিনিসের দাম কমেছে। হ্যাঁ সত্যি কথা, কমেছে। আমরা সয়াবিন তেলের দাম বা পাম অয়েলের দাম কমিয়ে রেখেছি। পাশাপাশি যেটা আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য যে ডলারের দাম বেড়ে গেছে। যার জন্য হিসাব করতে গিয়ে দেখা যাচ্ছে, যে সুফলটা আমরা পেতে পারতাম, সেটা পাচ্ছি না। যাই হোক আমরা ক্লোজ মনিটরিং করে দেখবো, সে অনুযায়ী দাম ঠিক করে দেওয়া হবে।”

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, “আমরা যদি কোথাও মনে করি ডিউটি কমানো দরাকর, যেমন করে চালেরটা কমিয়ে দেয়া হয়েছে, এই সব পণ্যের ডিউটিও কমিয়ে দেবে। যাতে কেউ মনোপলি সুবিধা নিতে না পারে।”

XS
SM
MD
LG