অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাছে হামলার জন্য ইউক্রেন,রাশিয়ার পরস্পরের প্রতি দোষারোপ


ম্যাক্সার টেকনোলজিস দ্বারা প্রদত্ত এই স্যাটেলাইট ছবিটিতে জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক স্থাপনার বেশ কয়েকটি পারমাণবিক চুল্লি সংলগ্ন একটি বিল্ডিং-এর ছাদের হওয়া সাম্প্রতিক ক্ষয়ক্ষতি দেখা যাচ্ছে। ২৯ আগস্ট, ২০২২। (স্যাটেলাইট ছবিটি ©২০২২ ম্যাক্সার টেকনোলজিসের মাধ্যমে প্রাপ্ত )

বুধবার রাশিয়া ও ইউক্রেনের বিরুদ্ধে দক্ষিণ ইউক্রেনে একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিকটে নতুন করে হামলা চালানোর জন্য পরস্পরকে দায়ী করেছে। এর ফলে সংঘর্ষের কারণে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ওই অঞ্চলে নিরাপত্তা সংক্রান্ত উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিকটে হামলার বিষয়ে এর আগেও আঙুল তোলা হয়েছে। জাতিসংঘের পরিদর্শকরা সেফটি এন্ড সিকিউরিটি পরীক্ষা চালানোর জন্য পারমাণবিক বিদুৎকেন্দ্র পরিদর্শনের পথে যখন ঠিক তখনই এই অভিযোগ পাওয়া যায়।

আন্তর্জাতিক পরমাণু সংস্থা আইএইএ-এর দলটি বুধবার কিয়েভ ত্যাগ করেছে। আইএইএ-এর মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসি বলেছেন যে, তার দল এই নিশ্চয়তা পেয়েছিল যে তারা তাদের কাজ চালিয়ে যেতে পারবে।

রাশিয়ার গ্যাজপ্রম বুধবার ইউরোপে একটি প্রধান পাইপলাইনের মধ্য দিয়ে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। ওই পাইপলাইন রক্ষণাবেক্ষণের উদ্দেশ্যে আগে থেকেই গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছিল।

গ্যাজপ্রম বলেছে যে, নর্ড স্ট্রিম পাইপলাইন শনিবার পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

গ্যাজপ্রম সাম্প্রতিক মাসগুলোতে এই ভাবে কয়েকবার বন্ধ করে দিয়েছে। কিছু ইউরোপীয় রাষ্ট্রের সরকার উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যে সংঘাতের সময় ইউক্রেনকে ইউরোপের সমর্থনের কারণে প্রতিশোধ নেয়ার উপায় হিসেবে রাশিয়া জ্বালানি সরবরাহকে ব্যবহার করবে।

এ প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি, এএফপি এবং রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG