অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনের ঝাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে পৌঁছেছেন জাতিসংঘের পরিদর্শকগণ


২ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের প্রকাশিত এক ভিডিও থেকে নেওয়া ছবি। এতে দেখা যাচ্ছে, আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (আইএইএ) মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রসি (মাঝে) এবং আইএইএ’র সদস্যরা ঝাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিদর্শন করছেন, ১ সেপ্টেম্বর ২০২২।

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক শুক্রবার বলেছে যে, ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলে তুমুল লড়াই অব্যাহত রয়েছে। এর মধ্যে রুশ নিয়ন্ত্রিত ঝাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাছের এলাকা এনেরদোহারে গোলাবর্ষণের মত ঘটনা ঘটেছে। ঐ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি এখন জাতিসংঘের পরমাণু বিশেষজ্ঞরা পরিদর্শন করছেন।

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক তাদের বিবৃতিতে আরও বলে যে, বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া ভস্টক ২২ এর মত রাশিয়ার যৌথ কৌশলগত মহড়াগুলো “সামরিক বাহিনীর বৃহৎ পরিসরের জটিল অভিযান পরিচালনার সক্ষমতাকে ধরে রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। এ ধরণের মহড়াগুলো অনেকটাই সাজানো, যা উদ্যোগী হতে উৎসাহ দেয় না। এগুলো মূলত রুশ নেতা ও আন্তর্জাতিক মহলকে বিমোহিত করার উদ্দেশ্যে পরিচালিত হয়।”

এদিকে, জাতিসংঘের পরমাণু বিশেষজ্ঞ দলটি বৃহস্পতিবার ঝাপোরিঝিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্রে তাদের প্রথম নিরাপত্তা পরিদর্শন শেষ করেছে। যদিও, স্থাপনাটির কাছেই রুশ ও ইউক্রেনীয় বাহিনীর মধ্যে লড়াই চলছে। বিশেষজ্ঞ দলটি শুক্রবারও তাদের কাজ অব্যাহত রেখেছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি তার প্রাত্যহিক সান্ধ্যকালীন বক্তব্যে বৃহস্পতিবার বলেন, “এই মিশনটি সম্ভব করে তোলার জন্য ইউক্রেন সব কিছু করেছে। কিন্তু, এটি অন্যায় যে দখলদারেরা আইএইএ’র মিশনকে বিদ্যুৎকেন্দ্রটিতে তাদের এক নিষ্ফল সফরে পরিণত করতে চাচ্ছে; যদিও এটি একটি জরুরি মিশন। আমি বিশ্বাস করি যে ঐ রকম কিছু হলে তা ঠেকানো সম্ভব হবে।”

আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রসি ১৪ সদস্যবিশিষ্ট দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তিনি বৃহস্পতিবার সংবাদদাতাদের বলেন, সংস্থাটি ইউরোপের বৃহত্তম এই পারমাণবিক স্থাপনায় “আমাদের অব্যাহত উপস্থিতি নিশ্চিত করতে যাচ্ছে।” তিনি বলেন যে, এটা “সুস্পষ্ট” যে ঝাপোরিঝিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্রের “ভৌত নিরাপত্তা একাধিকবার লঙ্ঘিত হয়েছে”।

গ্রসি বলেন, “বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নিয়ে আমি দুশ্চিন্তায় ছিলাম, দুশ্চিন্তায় আছি এবং আমি দুশ্চিন্তায় থাকব।”

XS
SM
MD
LG