অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুবদল কর্মী হত্যা: পুলিশ সুপারকে অভিযুক্ত করে মামলার আবেদন করেছে বিএনপি


বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জে যুবদল কর্মী রাজা প্রধান শাওনকে হত্যার ঘটনায়, জেলা পুলিশ সুপারসহ ৪২ জন ও আজ্ঞাতনামা আরও ১৫০ জনকে অভিযুক্ত করে বিএনপির পক্ষ থেকে আদালতে মামলার আবেদন করা হয়েছে।

রবিবার (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ইমরান হোসেনের আদালতে এই মামলার আবেদন করেন।

মামলার আবেদনে, নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল, জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আমীর খসরু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) তরিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক অঞ্চল) নাজমুল আলম, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান সহ বিয়াল্লিশ জন কর্মকর্তা ও সদস্যের নাম উল্লেখ করে তাদের অভিযুক্ত করা হয়েছে। এক নম্বর অভিযুক্ত করা হয়েছে জেলা ডিবি (গোয়েন্দা) পুলিশের এসআই মাহফুজুর রহমান কনককে। এছাড়া, আজ্ঞাতনামা আরও ১৫০ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে মামলার আবেদনে।

মামালার আবেদনে উল্লেখ করা হয়, “এক নম্বর অভিযুক্ত জেলা ডিবি পুলিশের এসআই মাহফুজুর রহমান কনকের অস্ত্রের গুলিতে যুবদল কর্মী শাওন নিহত হয়েছে এবং এ ঘটনায় অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা সহযোগিতা করায় তাদেরও অভিযুক্ত করা হয়েছে।”

মামলার বাদী রুহুল কবির রিজভীর আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার সাংবাদিকদের জানান, “আদালত আবেদনটি গ্রহণ করেছেন এবং তা যাচাই বাছাই করে পরবর্তীতে আইনসম্মত আদেশ প্রদান করা হবে বলে তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।”

এ বিষয়ে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী বলেন, “সরকার সংবিধান লঙ্ঘন করে বিএনপির গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করেছে।”

XS
SM
MD
LG