অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নাইজেরিয়ার সামরিক বাহিনীর অভিযানে ২৫০ জনেরও বেশি জঙ্গি নিহত


নাইজেরিয়ার লাগোসে মুরতালা মুহাম্মদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সন্ত্রাসবাদ বিরোধী মহড়ার সময় নাইজেরিয়া বিমান বাহিনীর বিশেষ ইউনিট। ৮ নভেম্বর, ২০১৬।

নাইজেরিয়ার সামরিক বাহিনী বলেছে যে তারা গত দুই সপ্তাহে বোকো হারাম এবং ইসলামিক স্টেট পশ্চিম আফ্রিকা প্রদেশ (আইএসডব্লিউএপি) গোষ্ঠীর হামলায় ২৫০ টিরও বেশি ইসলামপন্থী জঙ্গিকে হত্যা করেছে। একজন সামরিক মুখপাত্র বলেছেন, নাইজেরিয়ার সেনারা অপহৃত তিনজন চিবোক স্কুল ছাত্রীকেও উদ্ধার করেছে,যাদেরকে জঙ্গিরা ২০১৪ সাল থেকে বন্দী করে রেখেছিল।

নাইজেরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রক কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার রাজধানী আবুজায় নিরাপত্তা সম্পর্কিত হাল নাগাদ সংবাদ দেয়ার সময় এই ঘোষণা দিয়েছে।

প্রতিরক্ষা বিষয়ক মুখপাত্র মুসা দানমাদামি বলেছেন, সামরিক বাহিনী ২৫ আগস্ট থেকে ৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অপারেশন হাদারিন কাইতে অত্যন্ত সফল বিমান বোমা হামলা এবং স্থল ক্লিয়ারেন্স অভিযান পরিচালনা করেছে।

তিনি বলেন, অভিযানের প্রাথমিক পর্যায়ে সেনারা উত্তর-পূর্ব বোর্নো এবং ইয়োবে রাজ্যের বিচ্ছিন্ন গ্রামে বিদ্রোহীদের ওপর হামলা চালিয়ে ৫২ সন্ত্রাসীকে হত্যা করেছে। তিনি বলেন, সৈন্যরা ১৪ জন যোদ্ধাকে গ্রেপ্তার করেছে এবং ২২ জন জিম্মিকে উদ্ধার করেছে, যার মধ্যে তিনটি "চিবোক মেয়ে" রয়েছে যারা ২০১৪ সালে বোকো হারাম দ্বারা অপহৃত হয়েছিল।

দানমাদামি বলেছেন যে ৩ সেপ্টেম্বর বোর্নো রাজ্যের বামা জেলায় অভিযানের সময় সেনারা আরও বেশি সাফল্য অর্জন করেছিল, যখন বিমান ও স্থল হামলা বোকো হারাম এবং ইসলামিক স্টেটের আস্তানাগুলিকে নিশ্চিহ্ন করে।

"বিভিন্ন উত্স থেকে তথ্য মতে, পাঁচজন হাই প্রোফাইল কমান্ডার সহ ২০০ জনেরও বেশি সন্ত্রাসবাদীকে আত্মসমর্পন করানো হয়েছিল। তাদের ছিটমহলগুলিতে বোমাবর্ষণ করা হয়েছিল, বিমান হামলার ফলে প্রচুর সংখ্যক বিদ্রোহীকে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছিল।"

দানমাদামি বলেন, ১৫ জন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ, ১৮৯ জন মহিলা এবং ২৫২ জন শিশু সহ মোট ৫৫৬ জন সামরিক বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছে।

XS
SM
MD
LG