অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আল-শাবাবের জ্যেষ্ঠ ব্যক্তিদের হত্যা করে, জিম্মিদের মুক্ত করেছে সোমালি সামরিক বাহিনী


সোমালিয়ার বারওয়ের কাছে সোমালি সৈন্যদের দেখা যাচ্ছে। ৪ অক্টোবর ২০১৪। (ফাইল ছবি)

সোমালিয়া বলেছে যে দেশটির অভিজাত সামরিক ইউনিট লোয়ার শাবেল অঞ্চলে একটি অভিযানে আল-শাবাবের একজন শীর্ষ কমান্ডারকে হত্যা করেছে। কেন্দ্রীয় পুলিশ বলছে, অভিযানের সময় বেসামরিক জিম্মিদের মুক্ত করা হয়েছে।

সোমালি পুলিশের মুখপাত্র সাদিক আদান আলি দুদিশে বলেছেন, সোমালিয়ার এলিট সামরিক ইউনিট আল-কায়েদা-সংশ্লিষ্ট ইসলামি জঙ্গি গোষ্ঠী আল-শাবাবের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেছে, এতে দুই জ্যেষ্ঠ কমান্ডার নিহত এবং ১০ জন আহত হয়েছে।

পুলিশ বলছে, এই অভিযানের লক্ষ্য ছিল সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিশু থেকে ৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত ছোট শহর মুবারকে আল-শাবাবের প্রধান চাঁদাবাজির ঘাঁটি ধ্বংস করা।

শনিবার মোগাদিশুতে এক সংবাদ সম্মেলনে, মুখপাত্র বলেন, সেনাবাহিনী "কারাব" নামে পরিচিত আল-শাবাবের একজন সিনিয়র কমান্ডার এবং আল-শাবাবের চাঁদাবাজি কার্যক্রমের দায়িত্বে থাকা মুবার এবং আউ মায়েকে হত্যা করেছে।

দুদিশে বলেন, অভিযানের সময় সামরিক বাহিনী জঙ্গি গোষ্ঠীর কাছ থেকে বেসামরিক জিম্মিদের মুক্ত করেছে।

পুলিশ আল-শাবাবকে সহায়তা করার বিরুদ্ধে জনসাধারণকে সতর্ক করেছে।

দুদিশে বলেছেন, জনসাধারণকে জানানো হয়েছে, আল-শাবাবের প্রতি সহানুভূতিশীল থাকা এবং গোষ্ঠীটিকে সহযোগিতা করা একটি অপরাধ। যে কেউ এই কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকলে, তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম এবং বাসিন্দারা জানিয়েছেন, শুক্রবার আল-শাবাবের বিরুদ্ধে এক সামরিক অভিযানে বিমান হামলা চালানো হয়েছিল।

ইসলামপন্থী গোষ্ঠীটি দাবি করেছে, বিমান হামলায় ১০ জন নিহত এবং ২০ জন আহত হয়েছে, যারা সবাই বেসামরিক নাগরিক।

তবে, ভিওএ স্বাধীনভাবে বিমান হামলা বা বেসামরিক মৃত্যুর বিষয়টি যাচাই করতে পারেনি।

সোমালিয়া সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ক্রমবর্ধমান নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। আল-শাবাব দেশটির অন্যতম প্রধান হুমকি, তারা সারা দেশে এবং প্রতিবেশী কেনিয়াতেও মারাত্মক হামলার জন্য দায়ী।

XS
SM
MD
LG