অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়াকে ইউক্রেন পারমাণবিক কেন্দ্র থেকে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে আইএইএ


দক্ষিণ-পূর্ব ইউক্রেনে, রাশিয়ান সামরিক নিয়ন্ত্রণাধীন অঞ্চলের এনেরহোদার, জাপোরিঝিয়া অঞ্চলে জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাছে একটি রাস্তায় রাশিয়ার একটি সামরিক কনভয় দেখা যাচ্ছে । ১ মে, ২০২২।

ভিয়েনায় বৃহস্পতিবার রুদ্ধদ্বার বৈঠকে অংশ নেওয়া কূটনীতিকরা বলেছেন, ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের দখল বন্ধ করার দাবিতে জাতিসংঘের পারমাণবিক পর্যবেক্ষণের বোর্ড অফ গভর্নরস’এ একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল অ্যাটমিক এনার্জি এজেন্সি (আইএইএ) এর বোর্ড কর্তৃক গৃহীত প্রস্তাবে রাশিয়াকে "অবিলম্বে জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং ইউক্রেনের অন্য কোনো পারমাণবিক স্থাপনার বিরুদ্ধে সমস্ত পদক্ষেপ বন্ধ করার" আহ্বান জানানো হয়েছে।

৩৫ সদস্যের বোর্ড প্রস্তাবটি পাস করেছে ২৬টি পক্ষে, দুটি বিপক্ষে এবং সাতটি দেশ ভোটদানে বিরত ছিল। কূটনীতিকরা বলেছেন, রাশিয়া এবং চীন বিপক্ষে ভোট দিয়েছে।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ঐ স্থাপনার সামরিক দখল একটি পারমাণবিক দুর্ঘটনার ঝুঁকি উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ায় যা ইউক্রেন, প্রতিবেশী রাষ্ট্র এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জনসংখ্যাকে বিপন্ন করবে।

প্রস্তাবে আরও বলা হয়েছে যে, রাশিয়ার সামরিক বাহিনী এবং রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক কর্পোরেশন রোসাটমের উচিত পারমাণবিক কেন্দ্রে সমস্ত কার্যক্রম স্থগিত করা এবং নিয়ন্ত্রণ ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষের হাতে ফিরিয়ে দেওয়া।

ইউরোপের বৃহত্তম এই জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র,সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে বারবার আগুনের শিকার হয়েছে, যা আইএইএতে গুরুতর উদ্বেগ বাড়িয়েছে। মস্কো এবং কিয়েভ হামলার জন্য একে অপরকে দায়ী করেছে।

আইএইএ এর একটি প্রতিনিধিদল এই মাসের শুরুর দিকে স্থাপনাটি পরিদর্শন করে এবং জানায় যে গোলার আঘাতে ঐ স্থানটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সপ্তাহান্তে পাওয়ার প্ল্যান্টটি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল, এবং পারমাণবিক জ্বালানী রড এবং বর্জ্যের শীতলতা নিশ্চিত করার জন্য পাওয়ার লাইনগুলি আবার চালু করা হয়েছে। গলে যাওয়া রোধ করার জন্য এটি অপরিহার্য ছিল।

এই প্রতিবেদনের জন্য কিছু তথ্য রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG