অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

১৫০ আসনে ইভিএম: ৮৭১১ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করেছে নির্বাচন কমিশন


বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনশ’ আসনের মধ্যে ১৫০টি আসনের জন্য ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) সংগ্রহে আট হাজার ৭১১ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) এক প্রেস ব্রিফিং-এ নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর জানিয়েছে যে প্রকল্পের বিবরণ শিগগির অনুমোদনের জন্য পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হবে।

এর আগে, কমিশনের বৈঠকে প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল সম্প্রতি কোভিড আক্রান্ত হওয়ায় ভার্চুয়াল প্লাটফরমে বৈঠকে যোগ দেন।

নির্বাচন কমিশনার আলমগীর বলেন, “কমিশন এর আগে আগামী সাধারণ নির্বাচনে ১৫০ টি আসনে ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো। বর্তমানে আমাদের কাছে দেড় লাখ মেশিন আছে। যা দিয়ে সর্বোচ্চ ৭০ থেকে ৮০টি আসনের ভোট গ্রহণে ব্যবহার করা যাবে। তাই, নতুন ইভিএম সংগ্রহ ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য এই প্রকল্প অনুমোদন করা হয়েছে।”

গত বুধবার নির্বাচন ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে আগামী সাধারণ নির্বাচনের রোডম্যাপ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। গত ২৩ আগস্ট ইসি পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনে সর্বাধিক ১৫০ টি আসনে প্রচলিত ব্যালট পেপারের পরিবর্তে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেয়। সাধারণ নির্বাচন আগামী বছরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হতে পারে।

ইসি আয়োজিত গত জুলাই মাসের ধারাবাহিক সংলাপে, বিএনপি ও এর মিত্র দলগুলো যোগ দেয়নি এবং নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিরোধীতা করছে তারা। তবে, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ইসির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।

XS
SM
MD
LG