অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরাকে তুর্কি বিমান হামলায় ২৩ কুর্দি জঙ্গি নিহত, বলছে তুরষ্ক


তুর্কি বিমান বাহিনীর একটি এফ-১৬ ফাইটার জেট ১১ আগস্ট, ২০১৫ তারিখে তুরস্কের আদানার ইনসিরলিক বিমান ঘাঁটিতে অবতরণ করে।

তুরষ্কের যুদ্ধ বিমানগুলো ইরাকের ১৪০ কিলোমিটার অভ্যন্তরে এক অভিযানে ২৩ জন কুর্দি জঙ্গিকে 'নিষ্ক্রিয়' করেছে বলে রবিবার জানিয়েছে তুরষ্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

মন্ত্রক সাধারণত নিহত জঙ্গিদের 'নিষ্ক্রিয় বলে উল্লেখ করে। স্বায়ত্তশাসিত কুর্দিস্তান আঞ্চলিক সরকার নিয়ন্ত্রিত উত্তর ইরাকের আসোস অঞ্চলের এই মিশনে হতাহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মন্ত্রকের টুইটের সঙ্গে থাকা একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, এফ-১৬ যোদ্ধারা একটি পাহাড়ি এলাকায় উড্ডয়ন করছে এবং সেখানে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণও ঘটেছে। বৃহস্পতিবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকারের একটি বিবৃতির কথা মন্ত্রক উল্লেখ করে বলে, আসোস অঞ্চলে বিমান হামলা ১৬ টি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে।

তুরষ্ক ২০১৯ সাল থেকে ইরাকের উত্তরাঞ্চলে একের পর এক অভিযান পরিচালনা করে আসছে এবং বলছে, কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি বা পিকেকে-কে টার্গেট করছে সামরিক বাহিনী, যাতে তারা তুরস্কের সীমান্তের ওপরে হামলা চালাতে না পারে। এপ্রিলে, অপারেশন ক্ল-লক চালু করা হয়, যাতে স্থল ও বিমান বাহিনী জড়িত ছিল।

পিকেকে ১৯৮৪ সাল থেকে তুর্কি রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পুনরায় বিদ্রোহ শুরু করেছে। এই সংঘাতে হাজার হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই গোষ্ঠীটিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে।

পরে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানায়, রবিবারের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় তুরষ্কের এক পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যুর প্রতিক্রিয়ায় উত্তর সিরিয়ায় সাত জন 'সন্ত্রাসীকে' নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে। আল বাবের কাছে একটি তুর্কি ঘাঁটিতে এই হামলাটি কুর্দি জঙ্গীরা পিপলস প্রোটেকশন ইউনিট বা ওয়াইপিজি থেকে চালিয়েছে বলে সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

XS
SM
MD
LG