অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ক্যাপিটল দাঙ্গায় রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের দায় স্বীকার প্রাউড বয়েজ সদস্যের


২০২০ সালের ১২ ডিসেম্বর ওয়াশিংটনে ফ্রিডম প্লাজায় একটি সমাবেশে জেরেমি জোসেফ বার্টিনো (বাম থেকে দ্বিতীয়)। বার্টিনো, ২০২০ সালের নির্বাচনের পর সহিংস পথে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা হস্তান্তর বন্ধ করার জন্য অন্য প্রাউড বয়েজ সদস্যদের সাথে সাথে ষড়যন্ত্র করেন।(ফাইল ছবি)

নর্থ ক্যারোলাইনার এক ব্যক্তি,বৃহস্পতিবার স্বীকারোক্তি দিয়েছেন যে, ২০২০ সালের নির্বাচনের পর, প্রেসিন্টের ক্ষমতা হস্তান্তর সহিংস উপায়ে বন্ধ করার জন্য, অতি-ডানপন্থি প্রাউড বয়েজের অন্য সদস্যদের সাথে ষড়যন্ত্র করেছিলেন। তিনি হলেন এমন রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগে স্বীকারোক্তি দেওয়া চরমপন্থী গোষ্ঠীটির প্রথম সদস্য।

জেরেমি জোসেফ বার্টিনো (৪৩), ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারিতে ক্যাপিটলে জনতার আক্রমণে প্রাউড বয়েজ নেতারা যে ভূমিকা পালন করেছিলেন, সে বিষয়ে বিচার বিভাগের তদন্তে সহযোগিতা করতে সম্মত হয়েছেন। একজন ফেডারেল প্রসিকিউটর এ কথা জানিয়েছেন।

বার্টিনোর এই সহযেগীতা, প্রাউড বয়েজ-এর প্রাক্তন ন্যাশনাল চেয়ারম্যান হেনরি “এনরিক” ট্যারিওসহ অবরোধের জন্য অভিযুক্ত অন্য প্রাউড বয়েজ সদস্যদের ওপর চাপ বাড়াতে পারে।

৬ জানুয়ারির হামলায় পৃথকভাবে অভিযুক্ত, অন্য একটি চরমপন্থী গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা ওথ কিপার্স এবং ৪ জন সহযোগীকে রাষ্ট্রদ্রোহীতার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি করার পরই বার্টিনো স্বীকারোক্তি দিলেন। গৃহযুদ্ধের সময়ে প্রণয়ন করা এই রাষ্ট্রদ্রোহীতার ষড়যন্ত্র আইনের এখন আর তেমন প্রয়োগ নেই। আইন অনুযায়ী এই অপরাধে ২০ বছর পর্যন্ত কারাবাস হতে পারে।

আদালতে উত্থাপন করা অপরাধ সংশ্লিষ্ট বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বার্টিনো বুঝতে পেরেছেন যে, প্রাউড বয়েজ সদস্যদের ওয়াশিংটন যাওয়ার লক্ষ্য ছিল, জো বাইডেনের বিজয়ের অনুমোদন বন্ধ করা এবং এটি করতে, প্রয়োজনে শক্তি ও সহিংসতা প্রয়োগের জন্য গোষ্ঠীটি প্রস্তুত ছিল।

বিচার বিভাগের প্রসিকিউটর এরিক কেনারসন বলেছেন, বার্টিনোর মামলায় সাজার পরামর্শপত্রে, ৪ বছর ৩ মাস থেকে ৫ বছর ৩ মাসের কারাদণ্ডের সুপারিশ করা হয়েছে।

ক্যাপিটল দাঙ্গায় অভিযুক্তদের মধ্যে তিন ডজনেরও বেশি মানুষকে ফেডারেল কর্তৃপক্ষ প্রাউড বয়েজের নেতা, সদস্য বা সহযোগী হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

XS
SM
MD
LG