অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

উত্তর-পশ্চিম সিরিয়ার এক শহরে আবার সংঘর্ষ শুরু


উত্তর আলেপ্পো প্রদেশে হায়াত তাহরির আল-শাম (এইচটিএস) জিহাদি গোষ্ঠী সিরিয়ার বিরোধী-নিয়ন্ত্রিত এলাকার দিকে অগ্রসর হওয়ার সময় দিগন্তে ধোঁয়া উঠছে। ১৭ অক্টোবর, ২০২২।

একটি শক্তিশালী ইসলামি গোষ্ঠী, তুর্কি-সমর্থিত মিলিশিয়াদের কাছ থেকে উত্তর-পশ্চিম সিরিয়ার একটি শহর দখল করার কয়েকদিন পর সেখানে এবং এর আশেপাশে আবার সংঘর্ষ শুরু হয়েছে।

স্থানীয় একটি সূত্র ভিওএ-কে জানিয়েছে, সোমবার আফরিন শহর এবং এর আশেপাশের এলাকায় হায়াত তাহরির আল-শাম (এইচটিএস) জঙ্গি গোষ্ঠী এবং থার্ড লিজিয়ন বা আল-শামিয়া ফ্রন্ট নামে পরিচিত একটি তুর্কি-সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষ শুরু হয়।

এইচটিএস একটি প্রধান ইসলামপন্থী গোষ্ঠী, যারা উত্তর-পশ্চিম সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশের বেশিরভাগ নিয়ন্ত্রণ করে। পূর্বে আল-নুসরা ফ্রন্ট নামে পরিচিত, ২০১৮ সাল পর্যন্ত এই গোষ্ঠীটি সিরিয়ায় আল-কায়েদার প্রধান সহযোগী ছিল। তারপর তারা আনুষ্ঠানিকভাবে বৈশ্বিক সন্ত্রাসী সংগঠনটির সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে।

যুক্তরাষ্ট্র এইচটিএসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করেছে।

অবজারভেটরি জানিয়েছে, সোমবার সংঘর্ষ চলাকালীন, এইচটিএস যোদ্ধারা নিকটবর্তী শহর আজাজের কাছাকাছি আরেকটি গ্রামের নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হয়। স্থানীয় সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লড়াইয়ে উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছে।

নিরাপত্তার কারণে পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেকটি সূত্র ভিওএ-কে বলেছে, "চলমান লড়াইয়ের ফলে আফরিন এবং আজাজের মধ্যে প্রধান সড়ক বন্ধ হয়ে গেছে, যে সব স্থানীয় বাসিন্দা সহিংসতা থেকে বাঁচতে চায়, তাদের বাড়িঘর ছেড়ে যেতে বাধা দিয়েছে।"

যদিও অধিকার গোষ্ঠীগুলি আফরিনে তুর্কি-সমর্থিত গোষ্ঠীগুলিকে বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে অধিকার লঙ্ঘনের জন্য অভিযুক্ত করেছে। তারা আশঙ্কা করছে যে শহরটিতে এইচটিএস-এর দখলদারিত্ব স্থানীয়দের জন্য পরিস্থিতি আরও খারাপ করে তুলতে পারে।

আফরিনে মানবাধিকার সংস্থা বলেছে, এইচটিএস-এর আফরিন দখলের পরপরই, জঙ্গি গোষ্ঠীটি স্থানীয় জনগণের উপর কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে, যার মধ্যে নারীদের উপর একটি ইসলামিক পোষাক বাধ্যতামূলক ছিল।

XS
SM
MD
LG