অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার সঙ্গে বন্দী বিনিময়ে ১০৮ নারীর মুক্তি, বলছে ইউক্রেন


ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের চিফ অব স্টাফ আন্দ্রেই ইয়েরমাকের মাধ্যমে প্রকাশ করা এই ছবিতে বন্দী বিনিময়ের মাধ্যমে মুক্ত হওয়া নারীদের দেখা যাচ্ছে (১৭ অক্টোবর, ২০২২)

ইউক্রেন সোমবার রাশিয়ার সঙ্গে ১০০ জনেরও বেশি বন্দী বিনিময়ের ঘোষণা দিয়েছে। প্রায় ৮ মাস যুদ্ধের পর প্রথমবারের মত শুধু নারী বন্দী বিনিময় করার কথাও জানিয়েছে দেশটি।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের চিফ অব স্টাফ আন্দ্রেই ইয়েরমাক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান, “আজ আবারও বড় আকারের যুদ্ধবন্দী বিনিময় সংঘটিত হয়েছে... আমরা ১০৮ নারীকে বন্দিত্ব থেকে মুক্তি দিয়েছি। প্রথমবারের মত বিনিময়কৃত বন্দীদের সকলেই নারী।”।।

সোমবারের রাত্রিকালীন বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, “(বিনিময়কৃত বন্দীদের মধ্যে) ৯৬ জন সেনা সদস্য, যার মধ্যে আজভস্টল থেকে উদ্ধার করা ৩৭ জন ও ১২ জন বেসামরিক নারী রয়েছেন।”

জেলেনস্কি সংশ্লিষ্ট সকলকে এই সাফল্যের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, “আমাদের হাতে যত বেশি রুশ বন্দী থাকবে, তত দ্রুত আমরা আমাদের বীরদের মুক্ত করতে পারবো।”

ডনেটস্ক অঞ্চলের প্রধান ডেনিস পুশিলিন বন্দী বিনিময়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ১১০ জন এই বিনিময় ব্যবস্থায় অংশ নিতে রাজি হন। ২ জন রাশিয়ায় থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, যে ৭২ জন ব্যক্তি ইউক্রেন থেকে ফিরে এসেছেন, তারা ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনের দখলে থাকা বেসামরিক জাহাজের ক্রু।

মন্ত্রক আরও জানায়, যারা ফিরে এসেছেন তাদেরকে মস্কোতে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হবে এবং চিকিৎসা ও মনস্তাত্ত্বিক সহায়তা দেওয়া হবে।

ইয়েরমাক কিছু ছবি প্রকাশ করেন, যেখানে কয়েক ডজন কোট ও সামরিক পোশাক পরিহিত নারীদের সাদা রঙের বাস থেকে নেমে আসতে দেখা যাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG