অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরানের কারাগারে অগ্নিকাণ্ড তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল


ইরানের মিজান নিউজ এজেন্সি থেকে প্রাপ্ত একটি ছবিতে তেহরানের কাছে ইভিন কারাগারে অগ্নিকাণ্ডের ক্ষয়ক্ষতি দেখা যাচ্ছে। ১৬ অক্টোবর, ২০২২। ফাইল ছবি।

মঙ্গলবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, তাদের কাছে "গুরুতর উদ্বেগ" তৈরি করার মতো প্রমাণ রয়েছে যে ইরানি কর্তৃপক্ষ তেহরানের এভিন কারাগারে অগ্নিকাণ্ডের বিরুদ্ধে লড়াই এবং বন্দিদের পালাতে বাধা দেয়ার জন্য কাজ করছে- এমন দাবি করে বন্দিদের ওপর করা দমন-পীড়নকে ন্যায্যতা দেয়ার চেষ্টা করছে।

ইরান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শনিবার কারাগারে আগুন লেগে ৮ জন মারা গেছে এবং ৬১ জন বন্দি আহত হয়েছে।

এক বিবৃতিতে অ্যামনেস্টি বলেছে, "দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা অস্বীকার করার নিদর্শনের সাথে মিল রেখে এবং অপরাধ ঢাকার জন্য কর্তৃপক্ষ দ্রুত বিবৃতি জারি করেছে যেখানে ধোঁয়ায় শ্বাস নেয়ার ফলে এবং বন্দিদের মধ্যে মারামারির ফলে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করা হয়।"

সংস্থাটি জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে "আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে সবচেয়ে গুরুতর অপরাধ এবং ইরান কর্তৃপক্ষের দ্বারা সংঘটিত অন্যান্য গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলোকে মোকাবিলা করার জন্য" একটি তদন্তমূলক এবং জবাবদিহিতা প্রক্রিয়া প্রতিষ্ঠা করার আহ্বান জানিয়েছে।

অ্যামনেস্টি ইরান কর্তৃপক্ষের প্রতিও আহ্বান জানিয়েছে, যেন যত দ্রুত সম্ভব স্বাধীন আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের ইরানের কারাগারে অবাধ প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়। বিশেষ করে ঘটনার পর বন্দিদের সাথে সাক্ষাৎ স্থগিত করার পর বন্দি এবং তাদের পরিবারেরা তাদের নিরাপত্তা নিয়ে গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

XS
SM
MD
LG