অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

খাশোগজিকে নিয়ে টুইট: যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক সৌদি আরবে কারাবন্দি; জানালো পুত্র


আলমাদি পরিবারের পক্ষ থেকে প্রকাশিত এই ছবিতে ইব্রাহিম আলমাদি (বামে) কে, ফ্লোরিডার একটি অবকাশকালীন রিসোর্টে তার বাবা সাদের সাথে একটি ছবির জন্য পোজ দিতে দেখা যাচ্ছে৷ ২০ জুন, ২০২১। (ফাইল ছবি)

সৌদি আরবের কারাগারে বন্দী এক আমেরিকান নাগরিককে ইয়েমেনের যুদ্ধ এবং ২০১৮ সালে সাংবাদিক জামাল খাশোগজির হত্যাকাণ্ড নিয়ে টুইটারে "মৃদু" একটি পোস্টের জন্য শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। বুধবার তার ছেলে বার্তা সংস্থা এএফপি-কে এ কথা জানিয়েছেন।

৭২ বছর বয়সী সৌদি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিক সাদ ইব্রাহিম আলমাদিকে এই মাসে ১৬ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সামাজিক মাধ্যমে সরকারের সমালোচনার জন্য কঠোরতম শাস্তিগুলোর এটি একটি সর্বসাম্প্রতিক উদাহরণ বলে উল্লেখ করেছে মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলি।

গত বছরের নভেম্বরে দুই সপ্তাহের জন্য সৌদি আরবে প্রবেশের পর, আলমাদিকে আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন তার ছেলে ইব্রাহিম। তিনি এই সপ্তাহে মামলাটির বিষয়ে প্রকাশ্যে কথা বলেন, এবং তার মুক্তি নিশ্চিত করতে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হওয়ার জন্য আমেরিকান কর্মকর্তাদের সমালোচনা করেন।

ইব্রাহিম যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য করে বলেন, "আমার বাবার আটকের ঘটনাটি প্রথম দিন থেকেই তাদের সবচেয়ে বড় উদ্বেগের বিষয় হওয়া উচিত ছিল।"

বুধবার, ইব্রাহিম এএফপি-র সাথে টুইটার পোস্টের একটি তালিকা শেয়ার করেছেন, যেগুলো তার বাবার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের প্রমাণ হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। তিনি বলেন, তথ্যগুলো যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর নিশ্চিত করেছে।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তারা সৌদি সরকারের ঊর্ধ্বতন স্তরে এই মামলার বিষয়ে অব্যাহত এবং কড়া ভাবে তাদের উদ্বেগ উত্থাপন করেছে। দফতর বলছে, "মত প্রকাশের স্বাধীনতার অনুশীলনকে কখনই অপরাধমূলক ঘটনা হিসেবে বিবেচনা করা উচিত নয়"।

ইব্রাহিম বলেন, সৌদি কর্মকর্তারা আলমাদির ফোনে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একটি ব্যঙ্গচিত্র খুঁজে পেয়েছেন।

ইব্রাহিম আরও বলেন, আলমাদির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদকে অংশত সমর্থন ও অর্থায়ন এবং রাজ্যকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

তবে, সৌদি কর্মকর্তারা আলমাদির মামলা বা সামাজিক মাধ্যমে সরকারের সমালোচকদের বিরুদ্ধে অন্যান্য সাম্প্রতিক রায়ের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

XS
SM
MD
LG