অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ব্রিটেনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন ঋষি সুনাক


কনজারভেটিভ দলের নেতৃত্বের লড়াইয়ে জয়লাভের পর, লন্ডনে অবস্থিত কনজারভেটিভ দলের প্রধান কার্যালয়ের সামনে হাত নাড়ছেন ঋষি সুনাক (মাঝে), ২৪ অক্টোবর ২০২২।

ঋষি সুনাক ব্রিটেনের সর্বোচ্চ পদের লড়াইতে একবার হেরে গিয়েছিলেন। এরপর তিনি আবার সুযোগ পান সেই পদে আসীন হওয়ার।

কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত হয়ে কনজারভেটিভ দলের নেতা ও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বরিস জনসন পদত্যাগ করার পর, তার স্থলাভিষিক্ত হবার প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লিজ ট্রাসের কাছে হেরে যান ব্রিটেনের সাবেক এই অর্থমন্ত্রী।

তবে, অশান্ত ৪৫ দিনের মেয়াদের পরই পদত্যাগ করেন ট্রাস। অপরদিকে, জনসনও ক্ষমতায় ফিরে আসার প্রচেষ্টায় ক্ষান্ত দিয়েছেন।

এতে করে সবচেয়ে সামনে চলে আসেন সুনাক। কনজারভেটিভ দলের নেতা হওয়ার প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সোমবার জয়লাভ করেন তিনি। মাত্র দুইমাস আগে তিনি যেই দায়িত্বটি পাননি, সেই প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বই এবার গ্রহণ করতে চলেছেন সুনাক।

কনজারভেটিভ দলের নেতৃত্বের লড়াইয়ে বিজয়, সুনাকের জন্য একধরণের সত্যায়নও বটে। গতবারের প্রতিদ্বন্দ্বিতার সময়ে তিনি সতর্ক করেছিলেন যে, ট্রাসের করহ্রাসের অর্থনৈতিক পরিকল্পনাটি বেপরোয়া এবং তা সর্বনাশ ডেকে আনবে। এবং ঠিক তাই হয়েছে।

ট্রাসের কর হ্রাসের পরিকল্পনা অর্থবাজারকে শঙ্কিত করে তুলে, পাউন্ডের ব্যাপক দরপতন ঘটায় এবং তার কর্তৃত্বকে ধুলিস্মাৎ করে ফেলে। এরপরই গত সপ্তাহে পদত্যাগ করেন ট্রাস।

শ্বেতাঙ্গ নন, ব্রিটেনের এমন প্রথম প্রধানমন্ত্রী হবেন সুনাক। ব্রিটেনের প্রথম হিন্দু প্রধানমন্ত্রীও হবেন তিনি। ৪২ বছর বয়সী সুনাক বিগত ২০০ বছরের মধ্যে দেশটির সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন। অসাধারণ রাজনৈতিক প্রখরতা সম্পন্ন সুনাকের তারুণ্যদীপ্ত চেহারা, তার চৌকস স্যুট, এবং স্বভাবসুলভ, আত্মবিশ্বাসী আচরণের কারণে ব্রিটেনের গণমাধ্যম তাকে “ডিশি ঋষি” হিসেবে সম্বোধন করেছে।

১৯৮০ সালে ইংল্যান্ডের দক্ষিণ উপকূলের সাউদ্যাম্পটনে জন্ম হয় সুনাকের। তার পিতা-মাতা ভারতীয় বংশোদ্ভূত, তবে তাদের দুইজনেরই জন্ম পূর্ব আফ্রিকায়। সুনাক এক মধ্যবিত্ত পরিবারে বেড়ে উঠেছেন। তার বাবা একজন ডাক্তার ও তার মা একজন ফার্মাসিস্ট। সুনাক বলেছেন যে, তিনি তার বাবা-মায়ের পরিশ্রমী হওয়ার নীতিটি নিয়ে বেড়ে উঠেছেন।

XS
SM
MD
LG