অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিক্ষোভকারীদের সামাল দিতে খুব সম্ভবত রাশিয়া ইরানকে পরামর্শ দিচ্ছে: হোয়াইট হাউজ


নৈতিকতা পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর ২২ বছর বয়সী নারী মাহসা আমিনির মৃত্যুর ঘটনায় রাজধানী তেহরানে প্রতিবাদ করছেন ইরানের মানুষজন, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২। (ফাইল ফটো)

হোয়াইট হাউজের প্রেস সচিব ক্যারিন জ্যঁ-পিয়ের বুধবার জোরালোভাবে বলেন যে, বাইডেন প্রশাসন ইরানের জনগণকে সমর্থন করে, এবং বলেন যে, ইরানের বিক্ষোভকারীদের সামাল দেওয়ার ক্ষেত্রে ইরান ও রাশিয়ার মধ্যে সহযোগিতা থাকতে পারে।

জ্যঁ-পিয়ের সংবাদদাতাদের বলেন, “আমরা ইরানের সাহসী নাগরিক ও সাহসী নারীদের পাশে রয়েছি, যারা এই মুহুর্তে তাদের মৌলিক অধিকারগুলো নিশ্চিত করতে বিক্ষোভ করছেন।”

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র “ এ বিষয়ে উদ্বিগ্ন যে, গণবিক্ষোভ দমনে রাশিয়ার ব্যাপক অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে, বিক্ষোভ সামাল দেওয়ার সর্বোত্তম পন্থাগুলো নিয়ে রাশিয়া সম্ভবত ইরানকে পরামর্শ দিচ্ছে।”

জ্যঁ-পিয়ের আরও বলেন যে, ইউক্রেন যুদ্ধে যে ইরান রাশিয়াকে সহায়তা করছে, সেটির প্রমাণ “পরিষ্কার ও উন্মুক্ত”।

ইউক্রেন ও যুক্তরাষ্ট্র সহ তাদের পশ্চিমা সহযোগীরা বলেছে যে, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ইউক্রেনে আক্রমণ চালাতে রাশিয়ার ব্যবহৃত ড্রোনগুলো ইরানের সরবরাহ করা। ইরানের ড্রোন ব্যবহারের কথা রাশিয়া অস্বীকার করেছে এবং রাশিয়াকে সেগুলো সরবরাহ করার কথা ইরান অস্বীকার করেছে।

জ্যঁ-পিয়ের বলেন, “ইরান ও রাশিয়া যতই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে, ততই তারা পরস্পর আরও ঘনিষ্ঠ হচ্ছে। ইরানের প্রতি আমাদের বার্তা খুবই, খুবই পরিষ্কার: নিজেদের মানুষদের হত্যা করা বন্ধ করুন এবং ইউক্রেনের মানুষদের হত্যা করতে রাশিয়ায় অস্ত্র পাঠানো বন্ধ করুন।”

বুধবারের ঐ একই ব্রিফিংয়ে, জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র জন কার্বি বলেন যে, ইরানিদের মানবিক ও নাগরিক অধিকার লঙ্ঘন করতে এবং ইউক্রেনীয়দের জীবন বিপন্ন করতে রাশিয়া ও ইরান একসাথে কাজ করছে।

“যুক্তরাষ্ট্র ইরানের পাশে রয়েছে – ইরানের নারী ও ইরানের সকল নাগরিকের পাশে, যারা তাদের সাহসিকতা দিয়ে বিশ্বকে অনুপ্রাণিত করছে। শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে যারা সহিংসতা সংঘটিত করে বা অন্যথায় যারা তাদের খুবই, খুবই মৌলিক অধিকার দমন করার চেষ্টা করে, তাদের এর মূল্য দিতে বাধ্য করার জন্য পদক্ষেপ নেওয়া আমরা অব্যাহত রাখব।”


XS
SM
MD
LG