অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জাতিসংঘকে ইরানের বিরুদ্ধে ‘চূড়ান্ত পদক্ষেপ’ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল


এপি দ্বারা নিযুক্ত নয় এমন একজন ব্যক্তির তোলা ভিডিও থেকে এবং ইরানের বাইরে প্রাপ্ত এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে, পুলিশ তেহরানে মাহসা আমিনির মৃত্যুর ৪০ দিন উপলক্ষ্যে একটি বিক্ষোভ ভণ্ডুল করতে আসছে। ২৬ অক্টোবর, ২০২২।

বুধবার ও বৃহস্পতিবার ইরানের কর্তৃপক্ষ অন্তত ৪টি প্রদেশে কমপক্ষে ৮ জন বিক্ষোভকারী ও বিলাপকারীকে হত্যার পর অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘকে ইরানের বিরুদ্ধে “চূড়ান্ত পদক্ষেপ” নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

মাহসা আমিনির মৃত্যুর পর ইরানে এই সাম্প্রতিক বিক্ষোভ শুরু হয়। তিনি “ভুলভাবে” হিজাব পরার জন্য গ্রেপ্তার হওয়ার পরে পুলিশি হেফাজতে মারা গেছেন।

মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার বিষয়ক অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ডিরেক্টর হেবা মোরায়েফ এক বিবৃতিতে বলেছেন, “ইরানি কর্তৃপক্ষের গোলাবারুদসহ বেপরোয়া এবং বেআইনিভাবে আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার আন্তর্জাতিক নিষ্ক্রিয়তার ফলে যে ক্ষতি হচ্ছে তা আবারও প্রকাশ করে।জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সমস্ত সদস্য রাষ্ট্রকে এখনই সিদ্ধান্তমূলক পদক্ষেপ নিতে হবে এবং আরও প্রাণহানি রোধ করার জন্য ইরানের বিষয়ে অবিলম্বে বিশেষ একটি অধিবেশন আহ্বান করতে হবে।”

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, বুধবার এবং বৃহস্পতিবার ইরানের নিরাপত্তা বাহিনী “কুর্দিস্তান,পশ্চিম আজারবাইজান, কেরমানশাহ এবং লোরেস্তান প্রদেশে সমবেত বিক্ষোভকারী এবং বিলাপকারীদের ওপর গোলাবারুদ, ধাতব গুলির আগ্নেয়াস্ত্র এবং কাঁদানে গ্যাস দিয়ে হামলা করে তাদের বেআইনি শক্তির ব্যবহার জোরদার করেছে।”

মোরায়েফ বলেছেন, “ইরানের ওপর একটি নিরপেক্ষ প্রতিবেদন এবং জবাবদিহিতা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদকে অবশ্যই ইরানের কর্তৃপক্ষকে স্পষ্ট করে দিতে হবে যে, আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে তাদের অপরাধগুলো তদন্ত বা শাস্তি ব্যতীত ছাড় পাবে না।”

তিনি বলেন, “ন্যায়বিচারের জন্য মানবাধিকার রক্ষকদের এবং নিহতদের পরিবারের আর্তনাদ, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দীর্ঘ সময় আগেই শোনা প্রয়োজন ছিল।”

XS
SM
MD
LG