অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পশ্চিম তীরের সর্বসাম্প্রতিক সহিংসতায় ২ ফিলিস্তিনি জঙ্গি গুলিতে নিহত


ইসরাইলের অধিকৃত পশ্চিম তীরের নাবলুসে ইসরাইলি বাহিনীর হাতে নিহত ফিলিস্তিনি রামজি জাবারা’র অন্ত্যোষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিচ্ছেন শোকার্ত মানুষ। ২৮ অক্টোবর, ২০২২।

ইসরাইলি বাহিনী শুক্রবার ২ জন ফিলিস্তিনি জঙ্গিকে হত্যা করেছে। ফিলিস্তিনি সূত্রগুলো জানিয়েছে যে, ইসরাইলি সামরিক বাহিনী এ ঘটনাকে দখলকৃত পশ্চিম তীরে তাদের সৈন্যদের ওপর গাড়ি থেকে গুলি চালানোর প্রতিক্রিয়া বলে জানিয়েছে।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, একটি চলন্ত গাড়ি নাবলুস শহরের কাছে তাদের একটি সামরিক চৌকতে গুলি চালানোর পর সেনারা “সন্দেহজনক দুটি গাড়ি” লক্ষ্য করে গুলি চালায়। শহরটি সাম্প্রতিক মাসগুলোতে পশ্চিম তীরে সহিংসতার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে।

ইসরাইলি সামরিক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কোনো সৈন্য আহত হয়নি এবং “গুলিবিদ্ধদের শনাক্ত করা হয়েছে।”এতে আরও জানানো হয়, আরও সন্দেহভাজনদের সন্ধানে তল্লাশি শুরু হয়েছে।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রক মৃত ব্যক্তিদের শনাক্ত করেছে। তারা হলেন; এমাদ আবু রাশীদ (৪৭) এবং রামজি জাবারা (৩৫) দুজনেই নাবলুসের কাছে আসকার শরণার্থী শিবিরের বাসিন্দা ছিলেন। বিবৃতিতে আরও বলা হয় যে,তৃতীয় আরও ১ জন আহত হয়েছেন।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের ফাতাহ আন্দোলনের একটি জঙ্গি শাখা আল-আকসা ব্রিগেড নিহত দুজনকে তাদের সদস্য বলে দাবি করেছে।

ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্র মন্ত্রক এই হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে বলেছে, এর জন্য ইসরাইল সম্পূর্ণভাবে দায়ী।

১ নভেম্বর ইসরাইলে সাধারণ নির্বাচনের আগে, পশ্চিম তীরে সহিংসতা বেড়েই চলেছে।

এ বছর পশ্চিম তীরের ১০০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি, ইসরাইলি বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে, ফিলিস্তিনিদের পরিচালিত প্রাণঘাতি সড়ক-হামলায় ইসরাইলে এবং ইসরাইলি বসতিতে ২০ জন নিহত হয়েছেন।

ইসরাইলের নিরাপত্তা বাহিনীর ৪ জন সদস্যও নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে অন্তত ১ জন নিহত হয়েছেন ডেন অফ লায়ন্সের হামলায় নিহত হন। ডেন অফ লায়ন্স-কে ইসরাইল একটি “সন্ত্রাসী” গোষ্ঠী বলে মনে করে।

XS
SM
MD
LG