অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আমাদের অবস্থান পরিষ্কার, প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে: জনসভায় মির্জা ফখরুল


বরিশালে জনসভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন “আওয়ামী লীগ ২০১৪ ও ২০১৮ সালে যেভাবে নির্বাচন করেছিল, আবার সেই ভাবে নির্বাচন করার চেষ্টা করছে।” তিনি বলেন, “আমাদের অবস্থান পরিষ্কার। শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না। প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে এবং সংসদ ভেঙে দিতে হবে। তাকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। সেই নিরপেক্ষ সরকার অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করবে।”

শনিবার (৫ নভেম্বর) বরিশাল পৌর এলাকার বঙ্গবন্ধু উদ্যানে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, “তারা দেখানোর চেষ্টা করছে যে নতুন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) নিরপেক্ষ; যিনি বলছেন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করে নির্বাচন হবে। কিন্তু আমরা এর তীব্র বিরোধিতা করেছি।”

বিএনপি মহাসচিব বলেন, “সরকার বারবার বলে আসছে, বাংলাদেশ খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ এবং সর্বত্র উন্নয়ন হচ্ছে।কিন্তু বাস্তবতা হলো, বাংলাদেশের ৪২ শতাংশ মানুষ এখনও দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করছে।”

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “বিএনপির চলমান আন্দোলন শুধু চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া, তারেক রহমান বা কোনো নেতাকে বাঁচানোর জন্য নয়; বাংলাদেশের মানুষকে বাঁচানোর জন্যও।”

এর আগে, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে বরিশাল বিভাগীয় সমাবেশে যোগ দেন বিএনপির কয়েক হাজার নেতাকর্মী। সকাল ১১টার দিকে সমাবেশ শুরু হয়।

শনিবারের এই সমাবেশ, বিভাগীয় পর্যায়ে বিএনপির পঞ্চম সমাবেশ। প্রথমটি অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রামে, দ্বিতীয়টি ময়মনসিংহে এবং তৃতীয় ও চতুর্থ সমাবেশ হয় যথাক্রমে খুলনা ও রংপুরে।

XS
SM
MD
LG