অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানকে 'ঈশ্বর-পরিত্যক্ত' বলার কারণে বাইডেনের সমালোচনা করল তালিবান


একটি প্রেস কনফারেন্সে ভাষণ দিচ্ছেন তালিবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ৷ ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২। (ফাইল ছবি)

আফগানিস্তানকে "ঈশ্বর-পরিত্যক্ত স্থান" বলার জন্য ইসলামপন্থী তালিবান সরকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কঠোর সমালোচনা করেছে। এছাড়া, তারা কোনোরকম বিদেশী সমর্থন ছাড়াই, যুদ্ধ-বিধ্বস্ত দেশটিকে পুনর্গঠনেরও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

শনিবার কাবুলে এক সংবাদ সম্মেলনে তালিবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, “যারা এই ধরনের মন্তব্য করছে, তারা তাদের হতাশা ও আফগানিস্তানের প্রতি ঈর্ষার কারণেই এমন মন্তব্য করছে।” তালিবান শাসক গোষ্ঠী ক্ষমতা দখলের পর, দক্ষিণ এশীয় দেশটিতে শান্তি ও স্থিতিশীলতার প্রত্যাবর্তনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আফগানরা "স্বাভাবিকভাবেই তাদের দৈনন্দিন জীবনযাপন করছে।"

গত শুক্রবার ক্যালিফোর্নিয়ায় এক বক্তৃতায়, প্রেসিডেন্ট বাইডেন আফগানিস্তানে সেবা করার জন্য দেশটিতে নিযুক্ত সাবেক সৈন্যদের প্রশংসা করেন, এবং বারবার দেশটিকে "ঈশ্বর-পরিত্যক্ত" দেশ হিসাবে উল্লেখ করেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের একজন সেনেটর এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে যুদ্ধ বিধ্বস্ত আফগান অঞ্চলে তাঁর বেশ কয়েকটি সফরের বর্ণনা দেন।

কোনো দেশ এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে তালিবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি। কারণ, ইসলামপন্থী গোষ্ঠী তাদের ১৯৯৬-২০০১ সালের শাসনামল থেকে কিছু কঠোর নীতি নতুন করে আবারও চালু করেছে। তালিবান সরকার নারীদের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে, কার্যকরভাবে তাদের কাজ এবং শিক্ষার প্রবেশাধিকার সীমিত করেছে। এছাড়া, কিশোরী আফগান মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহণেও বাধা দিচ্ছে।

তালিবান কর্তৃপক্ষ তাদের নীতির প্রতি সাফাই গেয়ে বলেছে, তারা যা করছে তা আফগান সংস্কৃতি এবং ইসলামিক নীতির সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। এছাড়া, তারা তাদের সরকারে রাজনৈতিক অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করার আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে বলেছে, সমস্ত আফগান জনগোষ্ঠী এতে পর্যাপ্তভাবে প্রতিনিধিত্ব করছে।

XS
SM
MD
LG