অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

খাশোগজি হত্যাকাণ্ড মামলায় সৌদি যুবরাজের দায়মুক্তি রয়েছে: বাইডেন প্রশাসন


জাপানের ওসাকায় জি-টুয়েন্টি সম্মেলন চলাকালীন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান, ২৯ জুন ২০১৯। (ফাইল ফটো)

বাইডেন প্রশাসন বৃহস্পতিবার এই মর্মে রুল জারি করে যে, জামাল খাশোগজি হত্যাকাণ্ড মামলায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এর দায়মুক্তি রয়েছে। নিহত ঐ সাংবাদিকের বাগদত্তা এমন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে নিন্দা জানান।

২০১৮ সালের অক্টোবরে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে সৌদি গোয়েন্দারা খাশোগজিকে হত্যা করে তার দেহ ছিন্নভিন্ন করে ফেলে। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দাদের বিশ্বাস যে, ঐ অভিযানটি যুবরাজ সালমানের নির্দেশে চালানো হয়েছিল। যুবরাজ সালমান কয়েক বছর ধরেই কার্যতপক্ষে দেশটির শাসকের ভূমিকায় রয়েছেন।

সংবাদটি প্রকাশিত হওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই খাশোগজির প্রাক্তন বাগদত্তা, হাতিজে সেনগিজ, টুইটারে বলেন, “জামাল আজ আবারও মারা গেল”। পরবর্তীতে তিনি আরও লেখেন: “আমরা ভেবেছিলাম যে হয়ত #যুক্তরাষ্ট্র থেকে ন্যায়ের দিকে আলোকপাত করা হবে কিন্তু আবারও, অর্থই জিতে গেল”।

শুক্রবার মন্তব্যের অনুরোধ করা হলে সৌদি সরকারি যোগাযোগ দফতর তাৎক্ষণিকভাবে কোন সাড়া দেয়নি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়, দাপ্তরিক সময়ের পরে, ওয়াশিংটনে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটের মুখপাত্রের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের একজন মুখপাত্র লিখিত বিবৃতিতে বলেন, “রীতিভুক্ত আন্তর্জাতিক আইনের দীর্ঘদিনের প্রচলিত ও সুপ্রতিষ্ঠিত মূলনীতির ভিত্তিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রকের গ্রহণ করা একটি আইনী সিদ্ধান্ত এটি। মামলাটির যোগ্যতার সাথে এর কোন সম্পর্ক নেই।”

ঐ মুখপাত্র পরবর্তী প্রশ্নগুলোর জন্য পররাষ্ট্র ও বিচার বিভাগের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন।

ডিস্ট্রিক্ট অফ কলম্বিয়ার ইউএস ডিস্ট্রিক্ট আদালতে দাখিল করা এক নথিতে, বিচার বিভাগের আইনজীবিরা লেখেন যে, “রীতিভুক্ত আন্তর্জাতিক আইনে রাষ্ট্রপ্রধানের দায়মুক্তির নীতিটি সুপ্রতিষ্ঠিত”।

বাইডেন প্রশাসনের প্রতি নির্দেশ করে বিচার বিভাগের আইনজীবিরা বলেন যে, যুক্তরাষ্ট্রের সরকারের নির্বাহী বিভাগ “নির্ধারণ করেছে যে, বিবাদী বিন সালমান, বিদেশী সরকারের ক্ষমতাসীন সরকারপ্রধান হিসেবে, ক্ষমতাবলে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে রাষ্ট্রপ্রধানের দায়মুক্তি লাভ করেন”।

সেপ্টেম্বরের শেষদিকে, সৌদি বাদশাহ সালমান, যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে এক রাজকীয় ঘোষণার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন। একজন সৌদি কর্মকর্তা বলেন যে, এমন সিদ্ধান্ত যুবরাজের সেসব দায়িত্বের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ যেগুলো তিনি ইতোমধ্যেই পালন করছিলেন।


XS
SM
MD
LG