অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চীনে আইফোন কারখানায় কোভিড সংক্রমণ; শ্রমিকদের বিক্ষোভ, কারখানায় মারধর


চীনের আই ফোন ফ্যাক্টরিতে ভাইরাসের সংক্রমণ

বুধবার প্রত্যক্ষদর্শী এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও থেকে জানা যায়, বিশ্বের বৃহত্তম অ্যাপেল আইফোন কারখানার কর্মচারীদেরকে ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের প্রেক্ষিতে বেতনের দাবি করায় মারধর এবং আটক করা হয়।কোভিড-১৯ সংক্রমণের নতুন করে বৃদ্ধি মোকাবিলায় চীনের প্রচেষ্টা নিয়ে উত্তেজনা বেড়েছে।

গত মাসে ভাইরাসের সংক্রমণের ফলে কাজের অনিরাপদ পরিবেশের অভিযোগে তাইওয়ানের ফক্সকন টেকনোলজি গ্রুপ পরিচালিত আইফোন কারখানা থেকে হাজার হাজার কর্মচারী চলে গেছে।

কারখানার একজন কর্মচারী লি সানশানের মতে, ফক্সকন বেশি বেতনের প্রস্তাব দিয়ে আকৃষ্ট করা নতুন কর্মীদের জন্য শর্ত পরিবর্তন করার অভি্যোগে মঙ্গলবার বিক্ষোভ শুরু হয়।

লি বলেন, ফক্সকনের একটি বিজ্ঞাপন দেখে তিনি ক্যাটারিং- এর চাকরি ছেড়ে দেন। বিজ্ঞাপনটিতে দুই মাসের কাজের জন্য ২৫ হাজার ইউয়ান (সাড়ে ৩ হাজার ডলার) দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল। ২৮ বছর বয়সী লি বলেন, পরবর্তীতে শ্রমিকদেরকে জানানো হয়, ২৫ হাজার ইউয়ান পাওয়ার জন্য তাদের কম বেতনে অতিরিক্ত ২ মাস কাজ করতে হবে। এতে শ্রমিকরা ক্ষুব্ধ হন।

ফক্সকনের সদর দপ্তর তাইওয়ানের নিউ তাইপেই সিটিতে। তারা বলেছে, “কাজের ভাতা” “সবসময়ই চুক্তিভিত্তিক বাধ্যবাধকতার ভিত্তিতে পূরণ করা হয়েছে।”

অ্যাপেল ইনকর্পোরেশন সতর্ক করেছে যে, তাদের নতুন আইফোন ১৪ মডেলের সরবরাহ কারখানায় কোভিড-১৯ বিধিনিষেধের কারণে বিলম্বিত হবে। শহরটির কর্তৃপক্ষ কারখানাটিকে ঘিরে থাকা একটি শিল্প অঞ্চলে প্রবেশ স্থগিত করেছে। ফক্সকন বলেছে ওই কারখানাটিতে তারা ২ লাখ কর্মীকে নিয়োগ দিয়েছিল।

সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ক্ষমতাসীন দল “তৃণমূল ক্যাডারদের” নির্দেশ দিয়েছে ঝোংঝোতে ফক্সকন কর্মীদের মাঝে যারা চলে গেছে তাদের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার জন্য। এই সংবাদ নিশ্চিত করার জন্য কোম্পানিকে অনুরোধ করা হলে তারা কোনো উত্তর দেয়নি এবং সেই ব্যবস্থা সম্পর্কে বিশদ জানানোর অনুরোধেও সাড়া দেয়নি।

XS
SM
MD
LG