অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কর্ণফুলী টানেলের দক্ষিণ টিউবের কাজ শেষ, আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


কর্ণফুলী টানেল
বাংলাদেশের চট্টগ্রামে, কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে যাওয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেলের দক্ষিণ টিউবের সাধারণ কাজ শেষ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, টানেলের দক্ষিণ টিউবের সাধারণ কাজের সমাপ্তির ঘোষণা করেছেন। শনিবার বাংলাদেশের সেতু বিভাগের একটি তিনি এ ঘোষণা দেন। শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভারচুয়াল প্লাটফরমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কর্ণফুলী টানেলের দক্ষিণ প্রান্তের নির্মাণকাজ সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়েছে এবং টানেলের উত্তর প্রান্তের কাজ ৯৯ শতাংশ শেষ হয়েছে। এটি দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম নদীর তলদেশের টানেল, যা কর্মসংস্থান, পর্যটন এবং শিল্পায়ন বৃদ্ধির সঙ্গে জাতীয় অর্থনীতি বৃদ্ধিতে শূন্য দশমিক ১৬৬ শতাংশ অবদান রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে। কর্ণফুলী টানেল চট্টগ্রামের যানজট পরিস্থিতির ব্যাপক উন্নতি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।
টানেলের পূর্ব ও পশ্চিম দিকে দুটি পাঁচ দশমিক ৩৫ কিলোমিটার অ্যাপ্রোচ রোড নির্মাণ করা হচ্ছে। টানেলের দৈর্ঘ্য তিন দশমিক ৩২ কিলোমিটার এবং কর্ণফুলী নদীর তলদেশে ১৮ থেকে ৩১ মিটার গভীরতায় এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। কর্মকর্তারা বলছেন, এখন পর্যন্ত প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৯৪ শতাংশ। বাকি কাজ শেষ করতে আরও দুই মাস সময় লাগবে।
১০ হাজার ৩৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে কর্ণফুলী টানেল। বাংলাদেশ ও চীন সরকারের (জি টু জি) যৌথ অর্থায়নে টানেল প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। চীনের এক্সিম ব্যাংক পাঁচ হাজার ৯১৩ কোটি টাকা ঋণ হিসেবে দিচ্ছে। বাকি অর্থ দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।

কর্ণফুলী নদী চট্টগ্রামকে দুই ভাগে বিভক্ত। এই টানেলটি উত্তরের বন্দর শহরকে দক্ষিণে আনোয়ারা উপজেলার সঙ্গে সংযুক্ত করবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ (বিবিএ)। টানেলটি কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের দূরত্ব ৪০ কিলোমিটার কমিয়ে দেবে।

XS
SM
MD
LG