অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইসরাইলের জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত মন্ত্রী হচ্ছেন উগ্র ডানপন্থী নেতা বেন-গির


জেরুজালেমের একটি বাস স্টপে বিস্ফোরণের পর ইসরাইলের উগ্র-ডানপন্থী আইনপ্রণেতা ইতামার বেন- গভিরের ঘটনাস্থলে আসেন; ২৩ নভেম্বর, ২০২২।

ইসরাইলের পরবর্তী জাতীয় নিরাপত্তা মন্ত্রী হতে যাচ্ছেন, আরব-বিরোধী বক্তব্য দেওয়া ও কার্যক্রম পরিচালনার দীর্ঘ অভিজ্ঞতাসম্পন্ন চরমপন্থী রাজনীতিবিদ ইতামার বেন-গভির। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর লিকুদ দলের সঙ্গে অন্যান্য দলের জোট গঠনের চুক্তির শর্ত হিসেবে এরকম আরও কয়েকজন মন্ত্রীর নিয়োগ হতে পারে।

বেন- গভিরের জুইশ পাওয়ার পার্টির সঙ্গে এই চুক্তির বিষয়টি শুক্রবার প্রকাশ করে লিকুদ দল।

আরও তিনটি উগ্র ডানপন্থী ও চরম গোঁড়া দলের সঙ্গেও জোট গঠন নিয়ে আলোচনা চলছে। আলোচনা সফল হলে, নেতানিয়াহু আবার প্রধানমন্ত্রী হবেন এবং ইসরাইলের ইতিহাসে সবচেয়ে উগ্র ডানপন্থী ও ধর্মভিত্তিক সরকারের নেতৃত্ব দেবেন।

এমন সংবেদনশীল দায়িত্বে বেন- গভিরের নিয়োগ, ইসরাইল-ফিলিস্তিন সম্পর্কের মধ্যে আরও টানাপোড়েন সৃষ্টি করতে পারে বলে আশংকা দেখা দিয়েছে। যেসব ইসরাইলি সেনা ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলিবর্ষণ করে, বেন-গির ও তার মিত্ররা তাদেরকে দায়মুক্তি দিতে চান। এছাড়াও, তারা প্রতিপক্ষ আইনপ্রণেতাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া ও ইহুদীদের আক্রমণ করার অভিযোগে অভিযুক্ত ফিলিস্তিনিদের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার পক্ষপাতী।

১ নভেম্বরে অনুষ্ঠিত ইসরাইলের নির্বাচনের আগে, ফিলিস্তিন-বিরোধী বক্তব্য ও কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বেন- গভির সংবাদ শিরোনাম হন। এসময় তিনি পিস্তল প্রদর্শন করেন এবং উত্তেজনাপূর্ণ জেরুজালেম বসতিতে যে সব ফিলিস্তিনী পাথর নিক্ষেপ করে তাদের ওপর গুলি বর্ষণ করতে পুলিশকে উস্কানি দেন।

আইনজীবী হওয়ার আগে ও রাজনীতিতে প্রবেশের আগে, বেন- গভির বিভিন্ন অভিযোগে অভিযুক্ত হন। অভিযোগ মধ্যে রয়েছে বর্ণবাদকে উস্কে দেওয়া ও একটি জঙ্গি সংগঠনকে সমর্থন করা।

তার এই নতুন দায়িত্বে তিনি অন্যান্য দায়িত্বের পাশাপাশি পুলিশের দেখভাল করবেন। যার ফলে, তিনি বহু বছর ধরে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে যেসব চরম নীতিমালা চালুর প্রচারণা চালিয়েছেন, সেগুলোর বাস্তবায়ন করতে পারবেন।

২০২১ সালে বেন- গভিরের জুইশ পাওয়ার পার্টি, রিলিজিয়াস জিওনিজম পার্টির সঙ্গে একীভূত হলে, প্রথমবারের মতো সংসদে প্রবেশ করেন তিনি। বেন-গিরের সবচেয়ে কাছের রাজনৈতিক মিত্র হচ্ছেন রিলিজিয়াস জায়োনিজম পার্টির নেতা বেজালেল স্মটরিচ। তিনি আলাদা করে লিকুদ দলের সঙ্গে আলোচনা করছেন। লিকুদ পার্টি গত নির্বাচনে সংখাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

নেতানিয়াহু কিছু শর্ত মেনে নেননি, যেমন প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের দায়িত্ব পাওয়ার দাবি করেছিলেনস্মটরিচ। বর্তমানে স্মটরিচ অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব নেবেন কি-না, সে বিষয়ে আলোচনা চলছে।

XS
SM
MD
LG