অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরানের বিক্ষোভে শিশুদের ওপর নির্যাতনের নিন্দা জানিয়েছে ইউনিসেফ


২০২২ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর তেহরানে “নৈতিকতা পুলিশ” দ্বারা গ্রেপ্তার হওয়ার পর মাহসা আমিনির মৃত্যুর প্রতিবাদে বিক্ষোভের সময় পুলিশের একটি মোটরসাইকেল পুড়ছে। ফাইল ছবি।

রবিবার জাতিসংঘের সংস্থা ইউনিসেফ “ইরানে বিক্ষোভের সময় চলমান সহিংসতা ও নির্যাতনের ফলে ৫০ জনের বেশি শিশুর প্রাণনাশ এবং আরও অনেকে যে আহত হয়েছে” তার নিন্দা জানিয়েছে।

সংস্থাটি বলেছে, তারা “কিছু বিদ্যালয়ে অব্যাহত অভিযান এবং তল্লাশি চালানোর বিষয়ে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন” এবং বলেছে যে, “বিদ্যালয়কে অবশ্যই শিশুদের জন্য নিরাপদ স্থান হতে হবে।”

ইউনিসেফ জানিয়েছে, “বিক্ষোভের প্রতিক্রিয়ায় শিশুদের হতাহতের প্রথম ঘটনা ঘটার পরই ইরান কর্তৃপক্ষকে সরাসরি আমাদের উদ্বেগ জানিয়েছি।” কিছু মানবাধিকার সংস্থা প্রতিবেদন করেছে, বিক্ষোভে ৬৩ জনের মতো শিশু নিহত হয়েছে।

ইরান শিশু অধিকার কনভেনশনে স্বাক্ষরকারী দেশ। শিশুদের জন্য বিশ্বব্যাপী প্রতিরক্ষাকারী দল একটি বিবৃতিতে বলেছে, দেশটির নেতাদের “শিশুদের জীবন, গোপনীয়তা, চিন্তার স্বাধীনতা এবং শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করার অধিকারকে সম্মান, সুরক্ষা এবং পূরণ করার বাধ্যবাধকতা” রয়েছে।

নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী সংস্থা ইউনিসেফ ইরানকে “একটি মৌলিক নিশ্চয়তা হিসেবে শান্তিপূর্ণ সমাবেশে সমস্ত শিশুর অধিকারকে সম্মান করার আহ্বান জানিয়েছে - তারা যেই হোক বা যেখানেই থাকুক না কেন... শিশু এবং কিশোরদের অবশ্যই সব ধরনের ক্ষতি থেকে অর্থাৎ শুধুমাত্র তাদের জীবন ও স্বাধীনতাই নয়, তাদের মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্যের ক্ষতির ঝুঁকি থেকেও রক্ষা করতে হবে।”

XS
SM
MD
LG