অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

১৯৭১ সালের পরাজয়কে ‘সামরিক ব্যর্থতা’ বললেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী


ফাইল ছবি- পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি করাচিতে এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন। ১৫ অক্টোবর, ২০২২।

১৯৭১ সালে পাকিস্তান ভেঙে বাংলাদেশ সৃষ্টি হওয়াকে ‘সামরিক ব্যর্থতা’ বলেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। তিনি বলেন, তার নানা জুলফিকার আলী ভুট্টোর নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) জন্য ‘পরাজয় অনেক চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছিল’।

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া ‘পূর্ব পাকিস্তান হারানো’-কে একটি ‘রাজনৈতিক ব্যর্থতা’ বলে অভিহিত করার কয়েকদিন পর, বুধবার (৩০ নভেম্বর) নিশতার পার্কে তার দলের ৫৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে পিপিপি চেয়ারম্যান বিলাওয়াল এই মন্তব্য করেন।

সংবাদপত্র দ্য ডনকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেছিলেন, “যখন জুলফিকার আলী ভুট্টো সরকারের দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন, তখন জনগণ ভেঙে পড়েছিল এবং সমস্ত আশা হারিয়ে ফেলেছিল।”

বিলাওয়াল আরও বলেন, “তিনি ( জুলফিকার আলী ভুট্টো) জাতিকে পুনর্গঠন করেছেন, জনগণের আস্থা পুনরুদ্ধার করেছেন এবং অবশেষে আমাদের ৯০ হাজার সৈন্যকে দেশে ফিরিয়ে এনেছেন। যারা 'সামরিক ব্যর্থতার' কারণে যুদ্ধবন্দি হয়েছিলেন। সেই ৯০ হাজার সৈন্য তাদের পরিবারের সঙ্গে পুনরায় মিলিত হয়েছিল। আর, সবই সম্ভব হয়েছে আশার রাজনীতির কারণে... ঐক্যের... এবং অন্তর্ভুক্তির কারণে।”

অবসর গ্রহণের কয়েক দিন আগে জেনারেল কামার বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ৯২ হাজার পাকিস্তানি সৈন্য আত্মসমর্পণের কথা প্রত্যাখ্যান করেন। কামার বলেন, “আমি রেকর্ডটি সংশোধন করতে চাই। পূর্ব পাকিস্তানের পতন সামরিক নয়, রাজনৈতিক ব্যর্থতা ছিল। যুদ্ধরত সৈন্যের সংখ্যা ৯২ হাজার ছিল না, এটি ছিল মাত্র ৩৪ হাজার, বাকিরা বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের ছিল।”

XS
SM
MD
LG