অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কিংবদন্তী পেলে বলেছেন তিনি 'শক্ত এবং অনেক আশাবাদী'


লুসাইল স্টেডিয়ামে ক্যামেরুন ও ব্রাজিলের মধ্যকার ফুটবল ম্যাচের আগে ব্রাজিলের কিংবদন্তি পেলের একটি বড় পতাকা জনতার মধ্যে উন্মোচন করা হয়, ২ ডিসেম্বর, ২০২২।

শ্বাস-প্রশ্বাসের সংক্রমণে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে থাকা সত্ত্বেও ৮২ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তী পেলে শনিবার বলেছেন, শারীরিক সমস্যা থাকলেও তিনি নিজেকে 'শক্ত, অনেক আশাবাদী' মনে করছেন।

পেলে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ফুটবল খেলোয়াড় হিসাবে ব্যাপকভাবে বিবেচিত।কোলন ক্যান্সারে চিকিত্সাধীন তিনি। এই সপ্তাহে সাও পাওলোতে তাকে সংকটজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পেলে একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্টে বলেন, "আমার বন্ধুরা, আমি চাই সবাই শান্ত এবং ইতিবাচক থাকুন। আমি যথেষ্ট শক্ত, অনেক আশাবাদী এবং যথারীতি আমার চিকিৎসাও চলছে।"

পেলের চিকিৎসকরা শনিবার বলেছেন, তিনি "স্থিতিশীল" রয়েছেন। শেষদিনে তার অবস্থার অবনতি হয়নি।

এর আগে, গত শনিবার গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিল তিনবারের বিশ্বকাপ জয়ী এই খেলোয়াড়কে জীবনের শেষ পর্যায়ে যে চিকিৎসা দেয়া হয়, তা তিনি গ্রহণ করছেন। তবে আজ চিকিৎসকরা এ নিয়ে কোন মন্তব্য করেননি ।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে কোলন টিউমার অপসারণে অস্ত্রোপচার করেন। এর পর থেকে তিনি কেমোথেরাপির মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন। তার পুনর্মূল্যায়নের জন্যই পেলেকে এই সপ্তাহের শুরুতে আবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কাতারে চলমান বিশ্বকাপে খেলোয়াড়রা পেলের প্রতি তাদের সহানূভূতি প্রকাশ করেছেন।

ফ্রান্সের স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপে শনিবার এক টুইট বার্তায় বলেন, "রাজার জন্য প্রার্থনা করুন।"

ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেইন সেনেগালের বিপক্ষে তার দলের শেষ-১৬ ম্যাচের আগে এক সংবাদ সম্মেলনে পেলের কথা উল্লেখ করে বলেন,

"তাকে এবং স্পষ্টতই তার পরিবারের সকলকে আমাদের শুভেচ্ছা জানাই। তিনি আমাদের খেলার অনুপ্রেরণা, অবিশ্বাস্য ফুটবলার এবং অবিশ্বাস্য একজন মানুষ। আমরা তার সুস্থতা কামনা করছি।"

পেলে ইতিহাসের একমাত্র ফুটবল খেলোয়াড় যিনি ১৯৫৮, ১৯৬২ এবং ১৯৭০ সালের তিনটি বিশ্বকাপ জিতেছেন। তিনি বিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে সফল এবং জনপ্রিয় ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের একজন।

"ও রেই" (দ্য কিং) নামে পরিচিত পেলে ১৯৭৭ সালে অবসর গ্রহণের আগে ক্যারিয়ারে ১,২০০ টিরও বেশি গোল করেছেন।

XS
SM
MD
LG