অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যেকোনো মূল্যে ঢাকায় শান্তিপূর্ণ ও সফল সমাবেশ করবে বিএনপি: মির্জা ফখরুল


বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও অন্যান্য নেতারা।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন যে, সব প্রতিকূলতাকে মোকাবেলা করে যেকোনো মূল্যে তাদের দল রাজধানীতে ১০ ডিসেম্বরের শান্তিপূর্ণ ও সফল সমাবেশ করবে। মির্জা ফখরুল বলেন, “বাংলাদেশের জনগণের পাশাপাশি সারা বিশ্ব নজর রাখছে আমাদের ঢাকা সমাবেশের দিকে। যেকোনো মূল্যে আমাদের এই সমাবেশকে সফল করতে হবে।”

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্য়ালয়ে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত মতবিনিময় সভায় বিএনপি মহাসচিব এ কথা বলেন। মির্জা ফখরুল আরও বলেন, “জনসভা সফলভাবে করতে পুলিশের গুরুতর বাধা ও গ্রেপ্তার অভিযানের মধ্যেও বিএনপি নেতারা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন এবং জনগণের কাছে যাচ্ছেন। জাতি, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে হলে এবং গণতন্ত্র ফিরে পেতে হলে ১০ ডিসেম্বর আমাদের অবশ্যই শান্তিপূর্ণ ও সফল সমাবেশ করতে হবে।

আগামী ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে যোগদান করতে পেশাজীবী ও বুদ্ধিজীবীদের প্রতি আহবান জানান মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, “অতীতে যখন দেশ সংকটের সম্মুখীন হয়েছে, তখন বুদ্ধিজীবী ও পেশাজীবীরা এগিয়ে এসেছেন এবং অসামান্য ভূমিকা পালন করেছেন। আমরা আশা করি তারা এবারও এগিয়ে আসবেন।”

বিএনপি মহাসচিব বলেন, “পূর্বঘোষিত ১০টি সমাবেশের মধ্যে আমরা ইতোমধ্যে ৯টি বিভাগীয় সমাবেশ করেছি। অনেক বাধা অতিক্রম করে জনগণের অংশগ্রহণে কর্মসূচিতে সম্পূর্ণ সফল করেছে। মানুষ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য সমাবেশে যোগ দিয়েছেন।”

নয়াপল্টনে সমাবেশ করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা:ডিএমপি কমিশনার

ডিএমপি কমিশনার
ডিএমপি কমিশনার
বিএনপি ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে সমাবেশ করলে, তাদের বিরুদ্ধে দেশের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) ডিএমপি কমিশনার বলেন, “বিএনপি ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে সমাবেশের অনুমতি চাইলেও, আমরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুমতি দিয়েছি।”

বিকল্প সমাবেশস্থল সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার জানান, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিকল্প হিসেবে পল্লবী, কালশী ও ইজতেমা মাঠ হতে পারে সমাবেশস্থল। গত ২৯ নভেম্বর ২৬ শর্তে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১০ ডিসেম্বর বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেয় ডিএমপি। ডিএমপি কমিশনারের পক্ষে উপ-পুলিশ কমিশনার (হেডকোয়ার্টার অ্যান্ড অ্যাডমিন) আব্দুল মোমেন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়।

বিএনপির আবেদনের পর, যানজট ও জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হতে পারে বলে দলটিকে নয়াপল্টনের পরিবর্তে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেয় ডিএমপি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিএনপি ১০ ডিসেম্বর দুপুর ১২টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সমাবেশ করতে পারবে। ২৬টি শর্ত উল্লেখ করেি এতে বলা হয়, শুধু ডিএমপির অনুমতিই যথেষ্ট নয়, সমাবেশস্থল ব্যবহার করতে বিএনপিকে নিতে হবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি। সমাবেশস্থলে রাষ্ট্রবিরোধী কার্যকলাপ ও বক্তব্য নিষিদ্ধ বলে উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

XS
SM
MD
LG