অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কার্বন নিঃসরণ কমাতে বিশ্ব আগের চেয়ে বেশি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ: তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ


তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ

বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছন, কপ-২৭ এ সংশ্লিষ্ট অনেকেই কার্বন নিঃসরণ কমানোর জন্য আগের চেয়ে বেশি প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছে। তিনি জানান, জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মোকাবেলা করার জন্য আমরা যে বৈশ্বিক চুক্তিতে উপনীত হয়েছি, তা বাস্তবায়নে অগ্রগতি পর্যালোচনা, ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা তৈরি এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো নিয়ে একটা বৈশ্বিক ঐক্যমত তৈরি করার লক্ষ্যেই কপ-এর লক্ষ্য। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তথ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। জানান,“কার্বন নিঃসরণ কমাতে, বর্তমান বিশ্ব আগের চেয়ে অনেক বেশি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।”

পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মির্জা শওকত আলী মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, “পরিবেশ পরিবর্তনজনিত ‘লোকসান ও ক্ষয়-ক্ষতি’ এর জন্য বিশেষ তহবিল গঠনের দাবি আমাদের বহুদিনের। শেষ পর্যন্ত প্যারিস এগ্রিমেন্টের ৮ নম্বর অনুচ্ছেদে এটিকে স্বীকার করে নেওয়া হলেও কোনো অগ্রগতি হচ্ছিল না। মিশরে কপ-২৭ এ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট এবং বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী সহ বিশ্বের প্রায় একশ’ রাষ্ট্রপ্রধান-সরকারপ্রধান উপস্থিত ছিলেন। এবারের অন্যতম অগ্রগতি হলো, বিশ্ব সম্প্রদায় ‘লোকসান ও ক্ষয়-ক্ষতি’ কে গুরুত্ব দিয়েছে।”

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ জানান, “কপ-২৭ এ অনেকেই কার্বন নিঃসরণ কমানোর জন্য আগের চেয়ে বেশি প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আমাদের সরকারও ২০৪১ সালের মধ্যে মোট জ্বালানির ৪০% নবায়নযোগ্য জ্বালানি অর্থাৎ সোলার, গ্রিনপাওয়ার, জলবিদ্যুৎ ব্যবহারের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এসবের জন্য একটা প্রতিযোগিতা তৈরি হয়েছে। এটি খুব ভালো দিক।”

হাছান মাহমুদ আরো বলেন, “ভাবনার বিষয় এতোকিছুর পরও বিশ্বের তাপমাত্রা ১৮৮০ সালের ভিত্তি তাপমাত্রা থেকে ৩.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে, যা এখন ১.১ ডিগ্রি বেড়েছে। আর তাতেই সার্বিয়া, অস্ট্রেলিয়া, আফ্রিকায় দাবানল, পাকিস্তানে যারা পানির সঙ্গে খুব বেশি পরিচিত নয়, সেখানে বন্যা দেখা যাচ্ছে।”

XS
SM
MD
LG