অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নয়াপল্টনে সংঘর্ষে ২ জন নিহত হওয়ার দাবি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের—নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশের হামলার নিন্দা


বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দাবি করেছেন, নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গুলিতে তাদের দলের ছাত্র সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ২ জন নেতা নিহত এবং শতাধিক আহত হয়েছেন।

তিনি জানান, পুলিশের অভিযানের সময় দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার আহ্বায়ক আবদুস সালাম ও উত্তর মহানগর শাখার আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমানসহ বিএনপির প্রায় ৬০০ নেতাকর্মীকে দলীয় কার্যালয় ও নয়াপল্টন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ সময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় দলের আসন্ন বিভাগীয় সমাবেশ বানচাল করতে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের বাইরে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সহিংস সংঘর্ষের পরিকল্পনা করেছে সরকার।

তিনি বলেন, `আমি নয়াপল্টনে এসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারের অনুমতি নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশের চেষ্টা করি। তারপরও পুলিশ কর্মকর্তারা আমাকে ভেতরে যেতে বাধা দিয়েছেন, যা একটি গণতান্ত্রিক দেশে একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়’।

ফখরুল আরও বলেন, ‘এ দিনের সংঘর্ষের পেছনে সরকারের অন্য কোনো অসৎ উদ্দেশ্য থাকতে পারে। আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ডিএমপি কমিশনারকে অবিলম্বে এলাকা থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করে এখানে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছি। আজকের অপ্রত্যাশিত ঘটনার জন্য আমরা অবশ্যই সরকারকে দায়ী করব’।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি কার্যালয়ে পুলিশকে অভিযান চালাতে দিয়ে সরকার জঘন্য অপরাধ করেছে। আমাদের পার্টি অফিসে বোমা ছিল কি না তা কেবল পুলিশই বলতে পারবে। আমাদের অফিসে অভিযান চালিয়ে সেখানে বিস্ফোরক রেখে পুলিশ গণতান্ত্রিক নীতিকে ধ্বংস করেছে’।

বিএনপি কর্মীরা বিস্ফোরক ব্যাগ নিয়ে অফিসে প্রবেশ করেছে এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ফখরুল এ অভিযোগ দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করে বলেন, `পুলিশই ব্যাগ নিয়ে অফিসে প্রবেশ করেছে’।

রাত ৮টার দিকে এলাকা ছাড়ার আগেও মির্জা ফখরুল সেখানে থাকা সাংবাদিকদের সঙ্গে আবার কথা বলেন।

এ সময় তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশের হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে এ হামলা চালিয়েছে। তাঁকে পার্টি অফিসে ঢুকতে দেওয়া হয়নি এবং পার্টি অফিসের সামনে তাঁকে ফুটপাতে বসতে বাধ্য করা হয়।

তিনি বলেন, ‘এটি খুব দুর্ভাগ্যজনক। এটা পুলিশের অযৌক্তিক পদক্ষেপ। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই’।

তিনি আরও বলেন, ‘পরিস্থিতি খুবই ভয়ঙ্কর কারণ, পুলিশের গুলিতে বিএনপির অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যাকে পাচ্ছে তাকে গ্রেপ্তার করছে’।

XS
SM
MD
LG