অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানে দোষী সাব্যস্ত খুনির মৃত্যুদণ্ড প্রকাশ্যে কার্যকর করল তালিবান


ফাইল: আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমে ফারাহ প্রদেশে তালিবান যোদ্ধারা টহল দিচ্ছে, আগস্ট ১১, ২০২১। ২০২২ সালের ৭ ডিসেম্বর তালিবান শাসকরা ফারাহ প্রদেশের একটি স্টেডিয়ামে এই মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে।

আফগানিস্তানের তালিবান শাসকরা বুধবার ক্ষমতায় ফিরে আসার পর এই প্রথম , হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত এক ব্যক্তির জনসমক্ষে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। ফৌজদারি বিচারে ইসলামী আইন বা শরিয়া বিষয়ে তারা তাদের কঠোর

তালিবান সরকারের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, সকালের দিকে পশ্চিমাঞ্চলীয় ফারাহ প্রদেশের একটি খেলার মাঠে এই মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। সেখানে শত শত দর্শকের মধ্যে উপ-প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ শীর্ষ কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

তালিবানের সর্বোচ্চ আদালত ও পরবর্তী আপিল ট্রাইব্যুনালে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির বিচার করা হয়। মুজাহিদ জানান, আসামি ফারাহর এক বাসিন্দাকে ছুরিকাঘাতে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। তাছাড়াও তার একটি মোটরসাইকেলসহ , অন্যান্য জিনিসপত্রও চুরি করেছে।

দোষী সাব্যস্ত হবার পর তার মৃত্যুদণ্ড "কিসাস" আইনের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ রেখে দেয়া হয়। এই আইনে ব্যক্তিটিকে একইভাবে শাস্তি দেওয়া হয় , যেভাবে সে ঐ ব্যক্তিকে হত্যা করেছিল।

মুজাহিদ দাবী করেন, শরিয়া দণ্ড কার্যকর করার সিদ্ধান্তটি "খুব সতর্কতার সাথে" পরীক্ষা করা হয়েছে এবং পরিশেষে তালিবানের সর্বোচ্চ নেতা মোল্লা হিবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা দ্বারা তা অনুমোদিত হয়।

গত এক মাসে রাজধানী কাবুল এবং বেশ কয়েকটি আফগান প্রদেশের ফুটবল খেলার মাঠে শত শত দর্শকের সামনে তালিবান কর্তৃপক্ষ কয়েক ডজন নারী-পুরুষকে চাবুক মারার পর এবারই প্রথমবার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীদের বিরুদ্ধে ব্যভিচার, চুরি এবং বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার মতো "নৈতিক অপরাধ" করার অভিযোগ আনা হয়েছিল।

২০২১ সালের আগস্টে যুক্তরাষ্ট্র ও নেটো ২০ বছরের যুদ্ধের পর দেশটি থেকে তাদের সমস্ত সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর এই উগ্রবাদী গোষ্ঠীটি ক্ষমতা ফিরে আসে।

গত মাসে জাতিসংঘের নিরপেক্ষ বিশেষজ্ঞদের একটি প্যানেল সতর্ক করে দিয়ে বলে, নারীর অধিকার ও স্বাধীনতার ওপর তালিবানের নিষেধাজ্ঞা "মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ" হিসেবে গণ্য হতে পারে এবং আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় এর বিরুদ্ধে "লিঙ্গ নিপীড়ন" হিসেবে তদন্ত করা উচিত।

মুজাহিদ জাতিসংঘের প্যানেলের নিন্দা জানিয়ে বলেন, তাদের শরিয়াভিত্তিক ফৌজদারি বিচারের সমালোচনা করার অর্থ হচ্ছে, " পবিত্র ধর্ম ইসলাম ও আন্তর্জাতিক শাসনের প্রতি অসম্মান। "

XS
SM
MD
LG