অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ঢাকায় আওয়ামী লীগ-বিএনপি কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ২টি মোটরসাইকেলে আগুন


ঢাকায় আওয়ামী লীগ-বিএনপি কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ২টি মোটরসাইকেলে আগুন
ঢাকায় আওয়ামী লীগ-বিএনপি কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ২টি মোটরসাইকেলে আগুন

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার গোলাপবাগ মাঠে বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র কর, রাজধানীর মুগদা এলাকায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এসময় দুটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। শনিবার (১০ ডিসেম্বর) বিকালে মুগদা জেনারেল হাসপাতালের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দা এবং পুলিশ নিশ্চিত করেছে যে, সংঘর্ষের সময় যুবদল কর্মীদের মালিকানাধীন দুটি মোটরসাইকেল ক্ষমতাসীন দলের কর্মীরা পুড়িয়ে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, সকাল ১১টায় বহুল প্রত্যাশিত ঢাকা সমাবেশ শুরু হওয়ার পর, বিএনপির নেতাকর্মীরা গোলাপবাগ সমাবেশস্থলে ভিড় করেন। পাশাপাশি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদেরও রাজধানীর সড়কে অবস্থান নিতে দেখা গেছে। সকাল থেকে গণপরিবহন বন্ধ থাকায়, বিএনপি সমর্থকদের পায়ে হেঁটে সমাবেশস্থলের দিকে যেতে দেখা গেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ ছাত্রদল কর্মীকে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

জাতীয়তাবাদী জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কয়েকজন নেতাকর্মীকে মারধর করে, পুলিশে সোপর্দ করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতাকর্মীরা। শনিবার সকাল ১০টার দিকে ছাত্রদলের কর্মীরা ক্যাম্পাসে প্রবেশের চেষ্টা করলে, স্যার এ এফ রহমান হলের সামনে তাদের মারধর করা হয়। পরে, ছাত্রদল কর্মীদের শাহবাগ থানার পুলিশের কাছে দেওয়া হয়।

স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম বলেন, “তাদের মোবাইল ফোন পরীক্ষা করার পর আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে তারা ছাত্রদল কর্মী, আমরা তাদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছি।”

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর মোহাম্মদ বলেন, “নাশকতার সন্দেহে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার প্রমাণ না পেলে আমরা তাদের ছেড়ে দেব।” পুলিশ ছাত্রদল কর্মীদের পরিচয় প্রকাশ করেনি।

রাজধানীর গোলাপবাগ এলাকায় বিএনপির ঢাকা সমাবেশকে কেন্দ্র করে , শনিবার সকাল থেকেই, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন প্রবেশপথে অবস্থান নিতে দেখা গেছে।

XS
SM
MD
LG