অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ভারতের কাছে বড় ব্যবধানে হারলো বাংলাদেশ


ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ভারতের কাছে বড় ব্যবধানে হারলো বাংলাদেশ

বাংলাদেশের চট্টগ্রামে শনিবার (১০ ডিসেম্বর) ভারতের বিপক্ষে, তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। ভারতের দেওয়া ৪০৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে, বাংলাদেশ মাত্র ৩৪ ওভারে ১৮২ রানে অলআউট হয়ে যায়। এর ফলে ২৭৭ রানের বড় ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ।

টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ভারত এই ম্যামে এক বিধ্বংসী ব্যাটিং পারফরমেন্স দেখায়। ঈশান কিশাণ ২৪টি চার ও ১০ ছক্কায়, ১৩১ বলে ২১০ রান করেন। বিরাট কোহলিও পিছিয়ে ছিলেন না। এই ম্যাচে তিনি তার ৪৪তম ওডিআই সেঞ্চুরি করেছেন। শিখর ধাওয়ানকে তাড়াতাড়ি হারানো সত্ত্বেও, ঈশান ও বিরাট যৌথভাবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ২৯০ রান করেন। বাংলাদেশের মাটিতে এটা দ্বিতীয় সেরা ওডিআই জুটি।

ভারতের ৪০৯ রান ছিল একটি রেকর্ড-ব্রেকিং স্কোর। এটি ওডিআইতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এবং বাংলাদেশের মাটিতে সর্বোচ্চ স্কোর। সিরিজে প্রথম ম্যাচ খেলা তাসকিন আহমেদ দুই উইকেট নেন। এছাড়া এবাদত হোসেন ও সাকিব আল হাসান দুটি করে উইকেট নিয়েছিলেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে, এনামুল হক ও লিটন দাস ভালো শুরুর চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এনামুল সাত বলে আট রান করেন। এরপর লিটন ৪টি চার ও একটি ছক্কাযোগে ২৬ বলে ২৯ রান করেন। ব্যাট হাতে বাংলাদেশের তারকা পারফরমার ছিলেন সাকিব। ৫০ বলে ৪টি চারে ৪৩ রান করেন। ইয়াসির আলী ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ দুজনেই ভালো শুরু করেছিলেন। তবে ভারতের দুর্দান্ত বোলিং আক্রমণের বিরুদ্ধে বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেনি তারা। আর মুশফিকুর রহিম খারাপ ফর্মে ছিলেন।

অন্যদিকে, মেহেদি হাসান মিরাজ প্রথম দুই ম্যাচে বাংলাদেশের নায়ক ছিলেন; তিনি তৃতীয় ম্যাচে ব্যাটিং দক্ষতা দেখাতে ব্যর্থ হন এবং ৩ রানে সাজঘরে ফেরেন। শেষ পর্যন্ত, বাংলাদেশ ১৮২ রানে অলআউট হয় এবং ২২৭ রানের বিশাল পরাজয়ের সম্মুখীন হয়। রানের ব্যবধানের ভিত্তিতে ওয়ানডেতে এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম পরাজয়।

শেষ ম্যাচে হারলেও, ঢাকার চ্যালেঞ্জিং সারফেসে প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। বর্তমানে এই দুই দল তাদের দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ নিয়ে ভাবছে। আগামী ১৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে প্রথম ম্যাচ এবং ২২ ডিসেম্বর ঢাকায় দ্বিতীয় ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

XS
SM
MD
LG