অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

তেহরানে ৪০০ বিক্ষোভকারীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে: ইরানের বিচার বিভাগ


তেহরানে নৈতিকতা পুলিশের হাতে আটকের পর মাহসা আমিনির মৃত্যুতে প্রতিবাদ জানায় ইরানিরা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২। ফাইল ছবি

ইরানের বিচার বিভাগ মঙ্গলবার জানিয়েছে, তেহরানের আদালত মাহসা আমিনির মৃত্যুর প্রতিবাদে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪০০ জনকে ১০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড দিয়েছে।

ইরানে প্রায় তিন মাস ধরে বিক্ষোভ চলছে । এটিকে কর্মকর্তারা "দাঙ্গা" হিসাবে বর্ণনা করেছেন। নারীদের জন্য দেশটির পোশাক বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে গ্রেপ্তারের পরে পুলিশ হেফাজতে আমিনির মৃত্যুর পর থেকে এ বিক্ষোভ শুরু হয়।

তেহরানের বিচার বিভাগের প্রধান আলী আলঘাসি-মেহের, বিচার বিভাগের মিজান অনলাইন ওয়েবসাইটকে উদ্ধৃত করে বলেছেন, "তেহরান প্রদেশে দাঙ্গাকারীদের বিরুদ্ধে মামলার শুনানিতে ১৬০ জনকে ৫ থেকে ১০ বছরের কারাদণ্ড, ৮০ জনকে ২ থেকে ৫ বছর এবং ১৬০ জনকে ২ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে,"

গত সপ্তাহে এই অস্থিরতার কারণে দু'জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার পর ইসলামী প্রজাতন্ত্রটি ব্যাপক ভাবে আন্তর্জাতিক নিন্দার সম্মুখীন হয়েছে।

রাহানওয়ার্দ এবং মোহসেন শেকারি (২৩) উভয়কেই ইরানের ইসলামী শরিয়া আইনের অধীনে "মোহরেবেহ" বা " আল্লাহর বিরুদ্ধে শত্রুতা" এর অভিযোগে যথাক্রমে সোমবার এবং বৃহস্পতিবার ফাঁসি দেওয়া হয়।

এই দুটি মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আগে ইরানের বিচার বিভাগ বলেছিল, তারা বিক্ষোভের কারণে ১১ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। তবে এর বিরুদ্ধে যারা অভিযানে রয়েছেন তারা বলছেন, প্রায় এক ডজন লোককে এমন অভিযোগের মুখোমুখি হতে হবে যাতে তাদের মৃত্যুদণ্ড দেয়া হতে পারে।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত হাজার হাজার মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ৩ ডিসেম্বর ইরানের শীর্ষ নিরাপত্তা সংস্থা জানায়, এই অস্থিরতায় ২০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে।

XS
SM
MD
LG