অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

টাই ব্রেকারে ৪-২ স্কোরে ফ্রান্সকে হারিয়ে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়


লিওনেল মেসি

বিশ্বকাপ ফাইনালে এমন হাড্ডাহাড্ডি লড়াই বহুকাল দেখেনি বিশ্ব! কোটি কোটি দর্শকের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনা ফ্রান্সকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতলো। এক্সট্রা টাইম শেষে ৩-৩ ড্র এর পর টাই ব্রেকারে ৪-২ গোলে ফ্রান্সকে পরাজিত করে আর্জেন্টিনা।

টাইব্রেকারে ফ্রান্সের কিংসলে কোমান-এর শটটি ঠেকিয়ে দেন আর্জেন্টিনার গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, এবং অরেলিয়াঁ চুয়ামেনির গোলপোস্টের বাইরে করা শট ১৯৮৬ সালের পর আর্জেন্টিনাকে প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ বিজয়ীর খেতাবটি এনে দেয়। এটি আর্জেন্টিনার তৃতীয় বিশ্বকাপ জয়।

খেলার প্রথমার্ধে ফ্রান্স ২ গোলে পিছিয়ে থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধের শেষ নাগাদ স্কোরে সমতা ফিরিয়ে আনে ফ্রান্স। কিলিয়ান এমবাপে মাত্র দুই মিনিটের মধ্যে দুইটি গোল করেন, যার একটি ছিল ৮০তম মিনিটে পেনাল্টি শটে করা গোল।

ফ্রান্সের এই স্ট্রাইকার ১১৮তম মিনিটে আরেকটি পেনাল্টিতে করা গোলে ফাইনালে তার হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন। তবে তার আগেই ১০৯তম মিনিটে আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসির গোলে ৩-২ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা।

মেসি তার ২৬তম বিশ্বকাপ ম্যাচ খেলে রেকর্ড সৃষ্টি করেন। মূল খেলার প্রথমার্ধে মেসির যাদুতে আর্জেন্টিনা ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল। এদিন মেসি খেলার প্রথম গোলটি করেন ২৩তম মিনিটে পাওয়া এক পেনাল্টিতে।

চারটি পাস এর এক পাল্টা আক্রমণে দ্বিতীয় গোল পায় আর্জেন্টিনা। আলেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টার-এর কাটব্যাকের পূর্ণ ফায়দা নিয়ে ডি মারিয়া বল জড়ান ফ্রান্সের জালে।

XS
SM
MD
LG