অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জুলাই-নভেম্বর সময়ে উল্লেখযোগ্য হারে বাংলাদেশের পোশাক রপ্তানি বেড়েছে


বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার উপকণ্ঠে একটি গার্মেন্টস কারখানায়, কাজ করছেন কর্মীরা। ৯ আগস্ট, ২০২১।
বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার উপকণ্ঠে একটি গার্মেন্টস কারখানায়, কাজ করছেন কর্মীরা। ৯ আগস্ট, ২০২১।

বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) একজন পরিচালক বলেছেন, ২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-নভেম্বর মাসে প্রধান দেশগুলোতে বাংলাদেশের রপ্তানি উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিজিএমইএ পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল জানান, “উল্লেখিত সময়ের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নে আমাদের পোশাক রপ্তানি ১৬ দশমিক ২৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০২২-২৩ সালের জুলাই-নভেম্বর সময়ে রপ্তানি ৭৮১ কোটি ডলার থেকে বেড়ে ৯০৭ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। যুক্তরাজ্য ও কানাডায় যথাক্রমে ১১ দশমিক ৭১ শতাংশ ও ৩০ দশমিক ২৫ শতাংশ রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে।”

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) পরিসংখ্যানের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, “জার্মানি ইউরোপের বৃহত্তম বাজার। এই বাজারে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১ দশমিক ৮৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে, ২৭১ কোটি ডলার হয়েছে। এ ছাড়া, স্পেন ও ফ্রান্সে রপ্তানি যথাক্রমে ১৯ দশমিক ১৫ শতাংশ ও ৩৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।”

“ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত অন্যান্য দেশ; ইতালি, অস্ট্রিয়া, নেদারল্যান্ডস ও সুইডেনে রপ্তানি যথাক্রমে ৫০ দশমিক ৯৫ শতাংশ, ৪৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ, ৩৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ ও ২২ দশমিক ৯০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে;” জানান বিজিএমইএ পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল। তিনি বলেন, “উল্লিখিত সময়ের মধ্যে পোল্যান্ডে রপ্তানি একই সময়ে ১৯ দশমিক ৬১ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে।”

একই সময়ে, যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি পোশাক রপ্তানি ছিল ৩৪৭ কোটি ডলার। রুবেল বলেন, “যুক্তরাজ্য ও কানাডায় আমাদের রপ্তানি আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় যথাক্রমে ১১ দশমিক ৭১ শতাংশ ও ৩০ দশমিক ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।”

এই সময়ের মধ্যে অপ্রচলিত বাজারেও রপ্তানি বেড়েছে। রপ্তানি পরিমাণ ২৪৭ কোটি ডলার থেকে বেড়ে ৩১৯ কোটি ডলার হয়েছে। রুবেল বলেন, “প্রধান অপ্রচলিত বাজারগুলোর মধ্যে জাপানে আমাদের রপ্তানি ৫৯কোটি ৭৮লাখ ৩০ হাজার কোটি ডলারে পৌঁছেছে, যা ২০২২-২৩ সালের জুলাই-নভেম্বর মাসে আগের বছরের তুলনায় ৩৮ দশমিক ১১ শতাংশ বৃদ্ধি হয়েছে।

অন্যান্য অ-প্রথাগত বাজারে রপ্তানি বৃদ্ধির হার; মালয়েশিয়া ১০০ দশমিক ২১ শতাংশ, মেক্সিকো ৪৯ দশমিক ৬৮ শতাংশ, ভারত ৪৮ দশমিক ৭৮ দশমিক, ব্রাজিল ৪৪ দশমিক ৫৩ শতাংশ এবং দক্ষিণ কোরিয়া ৩০ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

XS
SM
MD
LG