অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আমেরিকার সঙ্গে খুবই ভালো সম্পর্ক, তারা আমাদের পরামর্শ দেয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন


পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বলেছেন, “ আমাদের সঙ্গে আমেরিকার খুবই ভালো সম্পর্ক। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা অনেক এগিয়ে। তারা আমাদের পরামর্শ দেয়। আতঙ্কের কোন কারণ নেই, আশঙ্কারও কোনো কারণ নেই।” মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) বিআইআইএস ইন্সিটিটিউটে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন আব্দুল মোমেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের প্রতিক্রিয়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “আপনারা এতো আতঙ্ক দেখেন কোথায়?এক কানে শোনেন আরেক কান দিয়ে বের করে দেন। আমেরিকা যাদের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে চায় তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়। আমরা মোটেও আশঙ্কা করি না। আমাদের আশঙ্কার কোনো কারণ নেই।”

বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক বাজার বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “আমরা নতুন নতুন দেশে যাচ্ছি। শুধু মধ্যপ্রাচ্য নয়, রোমানিয়া, বুলগেরিয়া, মাল্টা যাচ্ছি। একটার পর একটা নতুন বাজার তৈরি করছি।”

উন্নয়নের জন্য স্থিতিশীলতার ওপর গুরুতারোপ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, “পৃথিবীর কোন দেশে যদি স্থিতিশীলতা না থাকে, শান্তি না থাকে, তবে উন্নয়ন ঠিকভাবে হয়না। আমাদের এই উন্নয়ন টিকিয়ে রাখার জন্য, আমাদের অগ্রগতি আরও ত্বরান্বিত করার জন্যে, আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা জরুরি।”

তিনি বলেন, “মধ্যপ্রাচ্যে আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা না থাকায় সম্পদে ভরপুর হওয়া সত্ত্বেও অনেকের ভরাডুবি হয়েছে। ইয়েমেন ও আফ্রিকার লিবিয়া অন্যতম উদাহারণ। ছোট্টদেশ সিঙ্গাপুরে শান্তি স্থিতিশীলতা আছে, তাই দেশটি এশিয়ার বিস্ময়।”

ইতালি ও স্পেনে ই-পাসপোর্ট বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “ইতালি ও স্পেনসহ আরও দু’একটা দেশে আমাদের বিপুল সংখ্যক জনগণ সমস্যায় আছেন। তারা বয়স গোপন করে কাজ নেন। পরে পাসপোর্ট সংশোধন করতে মিশনে আসলে, তা নবায়ন করা সম্ভ হয় না। ফলে তারা বিভিন্ন ছলছাতুরি করেন, বিভিন্ন জায়গায় ঘুষ দেন। কেউ কেউ আবার বাবা ও মায়ের নাম পরিবর্তন করে ফেলেন। আমরা তো আর এই অনৈতিক কাজ করতে পারি না। তখন তারা মিডিয়ায় ভোগান্তির কথা বলেন, দোষারোপ করেন যে আমরা পাসপোর্ট দেই না।”

XS
SM
MD
LG