অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নিরাপদ যোগাযোগ নেটওয়ার্ক নিশ্চিত করবে শত-মহাসড়ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিজয়ের মাসে ১০০টি মহাসড়ক জনগণের জন্য উপহার। তিনি বলেন, “একটি নিরাপদ ও নিরবচ্ছিন্ন সড়ক নেটওয়ার্ক নিশ্চিত করার পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে এই মহাসড়কগুলো নির্মাণ করা হয়েছে।” বুধবার (২১ ডিসেম্বর) প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয় থেকে ১০০টি সড়ক-মহাসড়ক উদ্বোধন কালে দেওয়া বক্তৃতায় এ কথা বলেন। এসময় তিনি জনগণকে অন্যান্য সরকারের উন্নয়ন কাজের সঙ্গে আওয়ামী লীগ সরকারের তুলনা করতে অনুরোধ করেন।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, “আমি আশা করি দেশের জনগণ অন্তত বিবেচনা করবে যে প্রায় ৩০ বছর ক্ষমতায় থাকা ব্যক্তিরা কতটা উন্নয়ন করেছে এবং আওয়ামী লীগ সরকার কী করেছে।” দেড় মাস আগে এক দিনে ১০০টি সেতু উদ্বোধন করেছিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার তিনি ৫০ জেলায় ১০০টি সড়ক-মহাসড়ক যান চলাচলের জন্য উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি নিরাপদ ও নিরবচ্ছিন্ন সড়ক নেটওয়ার্ক নিশ্চিত করার পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে উদ্যোগ নেওয়ার ওপর গুরুত্ব দেন। এ ছাড়া, ভ্রমণের সময় কমানোর লক্ষ্যে এই সড়ক-মহাসড়কগুলো নির্মাণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, “সরকার একদিনে ১০০টি সড়ক-মহাসড়ক চালু করেছে। এর আগে একদিনে ১০০টি সেতুর উদ্বোধন করা হয়েছে। অতীতে কেউ এটা করতে পারেনি। এটা একমাত্র আওয়ামী লীগই করতে পারে।”

তিনি আরও বলেন, “আমাদের বলা হচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার দেশকে ধ্বংস করেছে… আমি জানি না, যারা বলে আওয়ামী লীগ দেশকে ধ্বংস করেছে, এর পরেও (১০০টি মহাসড়ক ও ১০০ টি সেতু চালু করার পর) তাদের কথা মানুষ বিশ্বাস করবে কি না। এটাই আমার প্রশ্ন।”

নতুন সড়ক-মহাসড়কের মধ্যে রয়েছে; ঢাকা বিভাগের ৬৫৩ দশমিক ৬৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ৩২টি, খুলনা বিভাগে ৩৫২ দশমিক ২৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ১৬টি, চট্টগ্রাম বিভাগের ২৫৮ দশমিক ৯০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ১৪টি, রংপুর বিভাগের ২০৩ দশমিক ৯৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ১৫টি, রাজশাহী বিভাগের ১৯৬ দশমিক ৮৭ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের আটটি, ময়মনসিংহ বিভাগের ১৪২ দশমিক ৪৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ছয়টি, সিলেট বিভাগের ১০৬ দশমিক ১৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের চারটি এবং বরিশাল বিভাগের ১০৭ দশমিক ২৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের চারটি।

এর মধ্যে ৯৯টি মহাসড়ক সরকারি অর্থায়নে করা হয়েছে। অন্য একটি ৭০ কিলোমিটার জয়দেবপুর (গাজীপুর)- এলেঙ্গা (টাঙ্গাইল) চার লেনের মহাসড়কের দুই পাশে সার্ভিস লেন নির্মাণ করা হয়েছে বৈদেশিক ঋণ (তিন হাজার ২০৫ কোটি টাকা) ও সরকারি তহবিলের (দুই হাজার ৯৬৩ দশমিক ৬৪ কোটি টাকা) সমন্বয়ে।

XS
SM
MD
LG