অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিলেন বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ


বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের চাপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) হারুনুর রশীদ বৃহস্পতিবার (২২ ডিসেম্বর) স্পিকার শিরীন শারমীন চৌধুরীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। গত ১১ ডিসেম্বর বিএনপির সাত এমপির মধ্যে পাঁচজন সরাসরি পদত্যাগপত্র জমা দেন। সংসদ ভেঙে দেওয়াসহ, ১০ দফা দাবিতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে পদত্যাগ করেন বিএনপির এই এমপিরা।

পদত্যাগকারী এমপিরা হলেন; ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সংসদ সদস্য মো. জাহিদুর রহমান, বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. মোশারফ হোসেন, বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. আমিনুল ইসলাম এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা।

হারুনুর রশীদ অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থান করায় এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া অসুস্থ থাকায় ঐ দিন স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিতে পারেননি। জাতীয় সংসদে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে হারুনুর রশীদ বলেন, “পদত্যাগপত্র গ্রহণ করতে স্পিকারের অস্বীকার করার সুযোগ নেই। তবে স্পিকার আমাকে বলেছেন, আমি পদত্যাগ না করলে দলের দাবি সংসদে তুলে ধরার সুযোগ আছে।”

বিএনপির ছয়জন সংসদ সদস্য পদত্যাগ করায় এখন আর সেই সুযোগ নেই বলে জানান হারুনুর রশীদ। তিনি আরও বলেন, “আপনারা সকলেই জানেন যে ২০১৮ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত সংসদে, বিএনপি থেকে মাত্র সাতজন নির্বাচিত হয়েছিলেন। তখন আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে আমরা সংসদে যোগ দিয়েছিলাম এবং আজও আমরা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পদত্যাগ করছি।” তিনি আরও বলেন যে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নিরপেক্ষ সরকারের পাশাপাশি সংবিধান ও আইনের সংস্কার প্রয়োজন। ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে সংঘর্ষের পর দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া বিএনপির নেতা-কর্মীদের মুক্তি দাবি করেন হারুনুর রশীদ।

এর আগে, গত ১০ ডিসেম্বর বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রুমিন ফারহানা গোলাপবাগের সমাবেশ থেকে দলের সংসদ সদস্যদের পদত্যাগের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন। ঐ দিনই সংসদ সদস্যরা ইমেইলের মাধ্যমে পদত্যাগপত্র পাঠান।

এদিকে তাদের পদত্যাগের পর পাঁচটি সংসদীয় আসন শূন্য ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করেছে সংসদ সচিবালয়। গত ১৮ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন (ইসি) ঘোষণা করেছে, আগামী ১ ফেব্রুয়ারি বিএনপির এমপিদের পদত্যাগে শূন্য হওয়া পাঁচটি সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ঠাকুরগাঁও-৩, বগুড়া-৪, বগুড়া-৬, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপনির্বাচন করবে ইসি।

XS
SM
MD
LG