অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রুশ ক্ষেপণাস্ত্র খেরসনে আঘাত হেনেছে, বলছে ইউক্রেন


বাখমুতে রুশ হামলার পর ধোঁয়া উঠতে দেখা যাচ্ছে, ৯ ডিসেম্বর ২০২২।

ইউক্রেন জানিয়েছে যে বুধবার রাশিয়ার হামলাগুলোর মধ্যে দক্ষিণাঞ্চলের খেরসন শহরের বেসামরিক লক্ষ্যবস্তুতে চালানো ক্ষেপণাস্ত্র হামলাও ছিল।

ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর জেনারেল স্টাফ জানায় যে, খেরসনে ৩৩টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। গতমাসে রুশ বাহিনী নিজেদের প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর ইউক্রেন খেরসন দখল করে।

রাশিয়া ইউক্রেনে বেসামরিক মানুষজনকে লক্ষ্যবস্তু বানানোর কথা অস্বীকার করেছে।

ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী পূর্বাঞ্চলের ডনব্যাস অঞ্চলের বাখমুত ও অন্যান্য এলাকায় বুধবার প্রবল লড়াইয়ের কথাও জানিয়েছে।

এদিকে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মঙ্গলবার ঘোষণা দেন যে যেসব দেশ পশ্চিমা দেশগুলোর আরোপিত জ্বালানী তেলের মূল্যসীমায় সম্মত হবে, সেসব দেশে রাশিয়া জ্বালানী তেল রফতানি নিষিদ্ধ করবে। ঐ মূল্যসীমা এই মাসের শুরুর দিকে কার্যকর করা হয়।

সরকারি এক পোর্টাল ও ক্রেমলিনের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের জারি করা এক আদেশ মোতাবেক, “বিদেশী প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিদের কাছে রাশিয়ার তেল ও তেলজাত পণ্য সরবরাহ করা নিষিদ্ধ, যদি এমন সরবরাহের জন্য করা চুক্তিগুলো প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে” মূল্যসীমাটি ব্যবহার করে।

রয়টার্স জানিয়েছে যে, আদেশটিকে “এমন পদক্ষেপের” প্রতি সরাসরি প্রতিক্রিয়া হিসেবে উপস্থাপন করা হয়, “যুক্তরাষ্ট্র ও বিদেশী রাষ্ট্র এবং তাদের সাথে যোগ দেওয়া আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর যেই পদক্ষেপগুলো বিরাগপূর্ণ এবং আন্তর্জাতিক আইনের সাথে সাংঘর্ষিক”।

এর আগে গ্রুপ অফ সেভেন (জি-সেভেন) ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) তেলের এই মূল্যসীমা নির্ধারণ করে। জি-সেভেন এর মধ্যে রয়েছে কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানী, ইতালী, জাপান, ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র। জি-সেভেন, ইইউ ও অস্ট্রেলিয়া তেলের এই মূল্যসীমা কার্যকর করবে বলে রয়টার্স জানিয়েছে।

XS
SM
MD
LG