অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নববর্ষে রাশিয়ার হামলার প্রতি নিন্দা জানিয়েছেন জেলেন্সকি


কিয়েভে রাশিয়ার হামলার পর ক্ষতিগ্রস্ত একটি হোটেলের সামনে দিয়ে একজন জরুরি পরিষেবা কর্মী হেঁটে যাচ্ছেন, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২।

নববর্ষের আগের দিন সন্ধ্যায় দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি ইউক্রেনে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলার প্রতি নিন্দা জ্ঞাপন করেন।

তিনি বলেন, “আজকে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বছরের শেষ নয়, সন্ত্রাসীরা যতই তা চাক না কেন। এটি রাশিয়ার ভাগ্যের পরিণতির ফলাফল।”

শনিবার ইউক্রেনের আকাশ জুড়ে রাশিয়ার হামলার প্রতি প্রতিক্রিয়ায় জেলেন্সকি বলেন, “সন্ত্রাসী রাষ্ট্রটিকে ক্ষমা করা হবে না। এবং যারা এমন হামলার আদেশ দেন, এবং যারা তা পরিচালনা করেন, [তাদেরকে] ক্ষমা করা হবে না। ভদ্র ভাষায় বলতে গেলে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার প্রথম দিনটি সম্পর্কে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, “২৪ ফেব্রুয়ারির বিস্ফোরণগুলো আমাদের হতবাক করেছিল। আমাদের বলা হয়েছিল যে আপনাদের আত্মসমর্পণ করা ছাড়া আর কোন উপায় নেই। আমরা বলছি যে আমাদের বিজয়ী হওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।”

জেলেন্সকি বলেন, “আমরা কিছুই হারাইনি। আমাদের থেকে সেগুলো ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। … আমরা আমাদের ভূখণ্ড হারাইনি – সেগুলো দখলদারেরা দখল করে নিয়েছে। বিশ্ব শান্তি হারায়নি – রাশিয়া তা ধ্বংস করেছে।”

নববর্ষের প্রায় ৩০ মিনিটের মাথায়, রাশিয়া আবারও কিয়েভে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালে রাজধানী শহরটি কেঁপে ওঠে। কিয়েভের মেয়র ভিটালি ক্লিশকো টেলিগ্রামে বলেন যে, শহরটির দুইটি ডিস্ট্রিক্টে হামলা চালানো হয়, তবে হতাহত বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা রয়টার্সকে জানান যে, দেশ জুড়ে বিমান হামলার সাইরেনগুলো আবারও বেজে ওঠে। কিয়েভ ও আঞ্চলিক কর্মকর্তারা টেলিগ্রামে জানিয়েছেন যে, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাগুলো কাজ করছে।

XS
SM
MD
LG