অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পুরানো বছরকে পেছনে ফেলে ২০২৩ কে বরণ করলো বিশ্ব


ফ্রান্সের প্যারিসে নববর্ষ উদযাপনের সময় আর্ক ডি ট্রায়াম্ফে একটি সাউন্ড অ্যান্ড লাইট শো অনুষ্ঠিত হয়, ১ জানুয়ারী, ২০২৩।

বিশ্ব টাইমস স্কয়ারে একটি ভরা মজলিশ এবং ইউরোপের রাজধানীগুলিতে আতশবাজির মাধ্যমে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছে। ইউক্রেনের যুদ্ধের অবসান এবং এশিয়ায় কোভিড-পরবর্তী স্বাভাবিকতায় ফিরে আসার আশায় এই উদযাপন করা হয়।

ইউক্রেনের সংঘাত, অর্থনৈতিক চাপ এবং বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাব দ্বারা চিহ্নিত ছিল গত বছরটি । তবু তা একটি নাটকীয় ফুটবল বিশ্বকাপ, দ্রুত প্রযুক্তিগত পরিবর্তন এবং জলবায়ু চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার প্রচেষ্টাও দেখেছে।

২০২৩ সালে এশিয়া, আফ্রিকা এবং ইউরোপের পরে, নিউ ইয়র্ক গতানুগতিক ভাবে নতুন বছর শুরু করে। হাজার হাজার লোক টাইমস স্কয়ারে বৃষ্টির মধ্যেই ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে। ওয়াটারফোর্ড স্ফটিক ত্রিভুজ দিয়ে তৈরি একটি ১২ ফুট (৩.৭ মিটার) গোলক, ক্যালেন্ডার পরিবর্তন চিহ্নিত করার জন্য একটি ২৫-তলা বিল্ডিংয়ের উপরে একটি দণ্ডে স্লাইড করা দেখে তারা।

এর আগে আটলান্টিকের অপর পাড়ে ইউক্রেনের সাথে সংহতি জানাতে লন্ডন আই নীল এবং হলুদ হয়ে যায়। ব্রিটিশ রাজধানীতে মধ্যরাতে আতশবাজি দেখা যায়।

শনিবার, রাশিয়া একাধিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে যা ইউক্রেনের মানবাধিকার সংস্থা "নববর্ষের প্রাক্কালে সন্ত্রাস" হিসাবে বর্ণনা করেছেন।

দেশব্যাপী সান্ধ্যকালীন কারফিউ জারি ছিল, যার ফলে ২০২৩ সালের শুরুর দিকের উদযাপন অনেক পাবলিক স্পেসে অসম্ভব হয়ে পড়ে। বেশ কয়েকজন আঞ্চলিক গভর্নর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বার্তা পোস্ট করে বাসিন্দাদের নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ না করার জন্য সতর্ক করেছেন।দ

কিয়েভে, যদিও, মধ্যরাত ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে লোকেরা শহরের কেন্দ্রীয় ক্রিসমাস ট্রির কাছে জড়ো হয়।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন নতুন বছরের ভাষণটি তার সৈন্যদের পিছনে রাশিয়ান জনগণকে একত্রিত করার জন্য উৎসর্গ করেন।

রেড স্কয়ারে কোন আতশবাজি ছাড়াই মস্কোতে উৎসবটি নীরবে পালিত হয়।

ইউরোপের অন্যান্য জায়গায় এথেন্সের পার্থেনন, বার্লিনের ব্র্যান্ডেনবার্গ গেট এবং প্যারিসের আর্ক ডি ট্রায়ম্ফের উপর আতশবাজি হয়। সেখানে ২০১৯ সাল থেকে ফরাসি রাজধানীর প্রথম নববর্ষের আতশবাজি দেখার জন্য চ্যাম্পস-এলিসিস এভিনিউতে ভিড় জমে।

চেক রাজধানী প্রাগ অর্থনৈতিকভাবে চাপে থাকায় আতশবাজির প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়নি।

দুই বছর ধরে কোভিড বিঘ্নের পর অস্ট্রেলিয়া তার প্রথম বিধিনিষেধ-মুক্ত নববর্ষ উদযাপন শুরু করে। সিডনি সাধারণত উজ্জ্বল আতশবাজি প্রদর্শনের মাধ্যমে নতুন বছরকে স্বাগত জানায়। এবার প্রথমবারের মতো হারবার ব্রিজের কাছে একটি রামধনু জলপ্রপাত নতুন করে যুক্ত হয়।

কোভিডের ঊর্ধ্বগতির কারণে চীনের অনেক মানুষ উদযাপনে আগ্রহী ছিল না।

XS
SM
MD
LG