অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে এক সপ্তাহে ১০ জন নিহত


রাজৌরি জেলার ডাংরি গ্রামে বন্দুকধারীরা গুলি চালানোর পর ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ানরা একটি তল্লাশি অভিযান চালায়, ২ জানুয়ারি, ২০২২।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ঘটে যাওয়া বিস্ফোরণ ও গোলাগুলিতে ১০ জন নিহত হয়েছে বলে স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সোমবার রাজৌরি জেলায় একটি বোমা বিস্ফোরণে একটি ৫ বছর বয়সী ছেলে এবং একটি ১২ বছর বয়সী মেয়ে নিহত হয়। এতে আরও পাঁচ বেসামরিক নাগরিক আহত হয়। এর এক দিন আগে, ডাংরি গ্রামে বেসামরিক একটি বাড়িতে অজ্ঞাত সশস্ত্র আততায়ীদের গুলিতে চারজন নিহত হয়েছে বলে স্থানীয় পুলিশ জানায়।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বুধবার, জম্মু শহরের একটি নিরাপত্তা চেকপয়েন্টে এক সংঘর্ষে চার হামলাকারী নিহত হয়।

কাশ্মীরের অধিক হিন্দু অধ্যুষিত এলাকায় এইসব হামলার ঘটনা ঘটেছে।

জম্মু ও কাশ্মীরে নয়াদিল্লি নিযুক্ত লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা সাম্প্রতিক হামলায় নিহত প্রত্যেক বেসামরিক নাগরিকের স্বজনদের প্রায় ১২,০০০ আমেরিকান ডলার ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

রাজৌরি এবং কাশ্মীরের অন্যান্য অংশে এই সহিংসতার ফলে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। ভারতীয় কর্মকর্তারা বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এদিকে কাশ্মীরের বিভিন্ন জায়গায় বিদ্যুৎ বিভ্রাটের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করে কিছু মানুষ।

ভারত ২০১৯ সালে, ভারতের একমাত্র মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজ্য কাশ্মীরকে সরাসরি ফেডারেল প্রশাসনের আওতায় আনে। তারা এই অঞ্চলে ভারত-বিরোধী বিদ্রোহীদের দমন করার জন্য প্রায় ৫ লক্ষ সৈন্য মোতায়েন করে এর সাংবিধানিক স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয়।

গত বছর কাশ্মীরে ১৭০ জনেরও বেশি সন্দেহভাজন বিদ্রোহী ও ২৬ জন ভারতীয় নিরাপত্তা সেনা নিহত হয়।

কাশ্মীরে, ভারত-বিরোধী বিদ্রোহীদের সমর্থন করার জন্য নয়াদিল্লি প্রতিবেশী পাকিস্তানকে দোষারোপ করেছে। পাকিস্তানি কর্মকর্তারা এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

প্রতিবেদনটির কিছু তথ্য এজেন্স ফ্রান্স-প্রেস থেকে নেয়া।

XS
SM
MD
LG