অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম সফর করবেন বাইডেন


ফাইল ছবি: গুস্তাভো বান্দা(মধ্য-ডানে), টেম্পলো এম্বাজাদোরেস দে জেসাসের যাজক, তিজুয়ানার বৃহত্তম অভিবাসী আশ্রয়স্থল, আমেরিকান সীমান্ত বরাবর, মেক্সিকোর তিজুয়ানাতে একটি আশ্রয়কেন্দ্রে অভিবাসীদের সাথে কথা বলেছেন, ১৩ অক্টোবর, ২০২২ ।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত পরিদর্শন করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। দায়িত্ব গ্রহণের পর এটাই তার প্রথম সফর হবে। আগামী সপ্তাহে মেক্সিকো সিটিতে, মেক্সিকো ও কানাডার নেতাদের সঙ্গে তার বৈঠকের সুত্র ধরেই তাঁর এই সীমান্ত পরিদর্শন।

“এটাই আমার উদ্দেশ্য। এটা নিয়ে আমরা এখন বিস্তারিত ভাবে কাজ করছি," বুধবার কেনটাকি সফরের সময় সংবাদদাতাদের এ কথা বলেন বাইডেন।

হোয়াইট হাউজে ফিরে আসার পর বাইডেন বলেন, তিনি সীমান্তে “কি ঘটছে” তা দেখতে চান এবং বৃহস্পতিবার সীমান্ত নিরাপত্তা নিয়ে মন্তব্য করার পরিকল্পনাও করেছেন।

সীমান্তে অভিবাসীর সংখ্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এখনও যুক্তরাষ্ট্রের জনস্বাস্থ্য আইন বহাল রয়েছে যা কর্তৃপক্ষকে যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় চাওয়া অনেক লোককে ফিরিয়ে দেওয়ার অনুমতি দেয়। রিপাবলিকান নেতারা, সীমান্ত নিরাপত্তায় অকার্যকর নীতিগুলির জন্য প্রেসিডেন্টের সমালোচনা করেন । এমনকি তারা সেখানে ভ্রমণ না করা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

তবে এই পরিদর্শনের খবরের পরে বুধবার কিছুটা প্রশংসা পাওয়া যায়। সাউথ ক্যারোলাইনার রিপাবলিকান সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম, যিনি এ ব্যাপারে সব চেয়ে বেশি সমালোচনা করেছিলেন, টুইট করেছেন, "আমি আনন্দিত যে প্রেসিডেন্ট বাইডেন অবশেষে আমাদের দক্ষিণ সীমান্ত পরিদর্শন করবেন – যা বানিজ্যিক জোট, চোরাচালানকারী এবং মানব পাচারকারীদের কাছে পুরোপুরি চলে গেছে ।"

রিপাবলিকানদের সীমান্ত নিরাপত্তা নিয়ে যেসব অভিযোগ রয়েছে , তার মধ্যে রয়েছে মেক্সিকো হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আসা ফেন্টানিলের পরিমাণ। দ্বিদলীয় ফেডারেল কমিশনের ২০২২ সালের একটি প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ফেন্টানিল এবং অনুরূপ ওষুধগুলি মূলত চীন থেকে প্রেরিত রাসায়নিক থেকে মেক্সিকোর ল্যাবগুলিতে তৈরি করা হচ্ছে।

ফেন্টানিল এবং অন্যান্য ল্যাব-উত্পাদিত সিন্থেটিক মাদকদ্রব্যগুলির কারণে অতিরিক্ত মাদকের সংকট যুক্তরাষ্ট্র আগে কখনও দেখেনি। তবে মাদক নিয়ন্ত্রণের যারা পক্ষে এবং বিশেষজ্ঞরা বলছেন কঠোর সীমান্ত সুরক্ষার উপর মাদক বিরোধী যে নীতি নির্ভর করে তা সম্ভবত ফলপ্রসূ নাও হতে পারে। স্বল্প পরিমাণে পাচার হলে তা বের করা কঠিন হতে পারে।

সোমবার ও মঙ্গলবারের শীর্ষ সম্মেলনে মাদক পাচার ও অভিবাসন হবে শীর্ষ আলোচনার বিষয়গুলির মধ্যে একটি। মেক্সিকান প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদরের আয়োজনে বাইডেন এবং কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো আলোচনায় উপস্থিত থাকবেন।

XS
SM
MD
LG